ক্যান্সার আক্রান্ত মাকে বাঁচাতে চায় হাবিপ্রবি শিক্ষার্থী মিলয়

প্রকাশিত: ১৩ মে, ২০২৪ ১১:৪৫:২৯ || পরিবর্তিত: ১৩ মে, ২০২৪ ১১:৪৫:২৯

ক্যান্সার আক্রান্ত মাকে বাঁচাতে চায় হাবিপ্রবি শিক্ষার্থী মিলয়

হাবিপ্রবি প্রতিনিধি: এ জগতে আমাদের একমাত্র অতি আপনজন আমাদের মা। যে মানুষটি জীবনের সর্বোচ্চ দিয়ে তার সন্তানকে আগলে রাখেন। সন্তানের যেকোনো বিপদ মায়ের আগে কেউই জানতে বা বুঝতে পারেনা। মায়ের চাঁদমুখ খানা দেখলে যেনো আত্মা জুড়ে যায়। তাইতো কবি কাজী নজরুল ইসলাম বলেছেন- "হেরিলে মায়ের মুখ, দূরে যায় সব দুখ"!

কিন্তু সেই মা যদি দুনিয়াতে না থাকে তার চেয়ে কষ্টের বিষয় আর দ্বিতীয়টি নেই। তাইতো মাকে হারাতে চান না হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের  (হাবিপ্রবি) মার্কেটিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মনিরুল হাসান মিলয়। মনিরুল হাসান মিলয় বগুড়া থেকে হাবিপ্রবিতে পড়াশোনা করতে এসেছেন। কিন্তু তার পড়াশোনা হয়ে উঠেছে বিষাদময়। কারণ, তার মা যে ক্যান্সারে আক্রান্ত। সঠিক চিকিৎসার অভাবে যে কোনো  সময় নিভে যেতে পারে জীবন প্রদীপ!

তাই সেই মাকে বাঁচাতে সর্বস্ব দিয়ে চিকিৎসা চালিয়ে যেতে চান মিলয়ের পরিবার। দীর্ঘদিন যাবৎ চিকিৎসার ব্যয় বহন করে পরিবারটির অবস্থা বেশ নাজুক। আর্থিক স্বচ্ছলতা শূন্যের কোঠায়। কিন্তু চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন বিপুল পরিমাণ অর্থ।

দীর্ঘদিন চলতে থাকে চিকিৎসা। ঢাকার বাংলাদেশ স্পাইন অ্যান্ড অর্থোপেডিক হাসপাতাল লিঃ এ ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের অর্থোপেডিক অ্যান্ড স্পাইন সার্জারী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডাঃ শাহ আলমের তত্বাবধানে চিকিৎসা ও বোন মেরুর অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়।বাড়িতে আসার পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে বগুড়ার ইন্সটিটিউট অব নিউক্লিয়ার মেডিসিন অ্যান্ড অ্যালাইন সায়েন্সেস এর অধ্যাপক ডাঃ মোঃ আবদুল আওয়ালের প্রতিবেদনে মাল্টিপল মায়োলমা নামক ক্যান্সার ধরা পরে।

বর্তমান রোগীকে সুস্থ রাখতে প্রতিমাসে চারটি করে ক্যামো দিতে হচ্ছে। প্রতিটি ক্যামোর দাম ২৫,০০০ টাকা। ডাক্তাররা এভাবে দুইবছর ক্যামো চালিয়ে যেতে বলেছেন।দুই বছর ক্যামো দিতে খরচ পড়বে ২৪,০০,০০০ টাকা। অন্যান্য খরচ সহ প্রায় ৩০,০০,০০০ লক্ষ টাকা প্রয়োজন। সঠিকভাবে চিকিৎসা চালাতে না পারলে ঘটতে পারে যেকোনো দুর্ঘটনা। তাই মিলয় এবং ভুক্তভোগী পরিবার সমাজের বিত্তবান সহ সর্বস্তরের মানুষের কাছে চিকিৎসার জন্য সাহায্য প্রার্থনা করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে, মনিরুল হাসান মিলয় বলেন,মাকে অনেকদিন হলো চিকিৎসা করাচ্ছি। দিনে দিনে মায়ের শারীরিক অবস্থা অবনতি হতে থাকে। এখন তো তিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত। ডাক্তাররা বলেছেন রোগী স্বাভাবিক থাকলে প্রতি মাসে  চারটি করে ক্যামো দিতে হবে যার জন্য প্রতি মাসে খরচ হবে ১,০০,০০০ টাকা। কিন্তু শরীর যদি খারাপ হয় তাহলে আরো বেশি টাকা লাগবে। ক্যামোসহ অন্যান্য চিকিৎসা চালাতে হবে।জানি না শেষ পর্যন্ত কি হবে। তবে আমি আমার সর্বোচ্চ দিয়ে আল্লাহর রহমতে আমার মাকে সুস্থ করতে চাই। কখনো অর্থের জন্য অন্যের দারস্থ হতে হয়নি,মানুষের বিপদে আপদে যেকোনো সময় পাশে থাকার চেষ্টা করেছি। কিন্তু আজকে আমার মায়ের চিকিৎসার জন্য মানুষের কাছে হাত পাততে হচ্ছে। তাই সকলের প্রতি আকুল আবেদন থাকবে আমার মাকে বাঁচাতে আপনারা আপনাদের অবস্থান থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করুন।

আপনাদের সহযোগিতায় বাঁচতে পারে একজন মায়ের জীবন। মায়ের হাতে খাবার খেতে পারবে একজন সন্তান।


আর্থিক সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা:

মনিরুল হাসান মিলয় (পার্সোনাল)
বিকাশঃ 01797774060
নগদঃ 01797774060
রকেটঃ 017977740607

ব্যাংক হিসাবের নামঃ মোঃ নাঈম ইসলাম (মিলয়ের ব্যাচমেট)
হিসাবের নংঃ ৫০৭৪০১০০২৩৭০৮
রূপালী ব্যাংক লিঃ, হাবিপ্রবি কর্পোঃ (৫০৭৪) শাখা, দিনাজপুর।

প্রজন্মনিউজ২৪/মুশ


 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন