সকাল-সন্ধ্যা সর্বাত্মক বাংলা ব্লকেড শুরু ঢাবি শিক্ষার্থীদের

প্রকাশিত: ১০ জুলাই, ২০২৪ ১১:৪৮:৪২

সকাল-সন্ধ্যা সর্বাত্মক বাংলা ব্লকেড শুরু ঢাবি শিক্ষার্থীদের

নিজস্ব প্রতিনিধি: কোটা আন্দোলনের এক দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও আশপাশের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে অবস্থান কর্মসূচির অংশ হিসেবে ঘোষিত সকাল-সন্ধ্যা সর্বাত্মক বাংলা ব্লকেড শুরু করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীরা।

১০ জুলাই বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে সরকারি চাকরিতে সব গ্রেডে কোটা বৈষম্য দূর করে অনগ্রসর গোষ্ঠীর জন্য ন্যূনতম ৫ শতাংশ কোটা বহাল রেখে কোটা সংস্কারের এক দফা দাবি আদায়ে এ কর্মসূচিতে জড়ো হন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে মঙ্গলবার (৯ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কর্মসূচির ঘোষণা দেওয়া হয়। সর্বাত্মক বাংলা ব্লকেড অনুযায়ী আজ সারাদিন দেশের সব গুরুত্বপূর্ণ স্থান অবরোধ করা হবে। দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানের পাশাপাশি হাইওয়ে ও রেলপথও এ ব্লকেডের আওতায় থাকবে।

এদিকে সকাল ১০টায় শিক্ষার্থীদের ছোট ছোট মিছিল নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে জড়ো হতে দেখা যায়। পরে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ স্থান প্রদক্ষিণ করে শাহবাগ, চানখারপুল, বাটা সিগন্যাল, মৎস্য ভবন, মিন্টু রোড, ইন্টারকন্টিনেন্টাল মোড়, বাংলামটর পেরিয়ে কারওয়ান বাজার ও ফার্মগেট অবরোধের কথা রয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল লাইব্রেরির সামনে জড়ো হয়ে শিক্ষার্থীরা একাত্তরের পথ ধরো, বাংলা ব্লকেড সফল করো ব্লকেড ব্লকেড, বাংলা ব্লকেড দফা এক দাবি এক, কোটা নট কাম ব্যাক সংবিধানের/মুক্তিযুদ্ধের মূলকথা, সুযোগের সমতা, সারা বাংলায় খবর দে, কোটা প্রথার কবর দে, আঠারোর হাতিয়ার, গর্জে উঠুক আরেকবার, জেগেছে রে জেগেছে, ছাত্রসমাজ জেগেছে লেগেছে রে লেগেছে, রক্তে আগুন লেগেছে,কোটা প্রথা, বাতিল চাই বাতিল চাই,কোটা প্রথার বিরুদ্ধে ডাইরেক্ট অ্যাকশন কোটা না মেধা, মেধা মেধা, আপস না সংগ্রাম, সংগ্রাম সংগ্রাম মুক্তিযুদ্ধের বাংলায়, বৈষম্যের ঠাঁই নাই ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকেন।

এর আগে ৬ জুলাই শাহবাগে অবস্থান কর্মসূচি শেষে সারা দেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ স্থান, মহাসড়ক অবরুদ্ধ করার ঘোষণা দেন বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের নেতারা। যাকে বাংলা ব্লকেড হিসেবে ঘোষণা করা হয়। যে কর্মসূচির অংশ হিসেবে দুইদিন শাহবাগ, চানখারপুল, ইন্টারকন্টিনেন্টাল মোড়, বাংলামটর, কারওয়ান বাজার, ফার্মগেট, মিন্টু রোড, মৎস্য ভবন, অবরোধ করেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা। তাছাড়া ইডেন ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা নিউমার্কেট-সাইন্সল্যাব অবরোধ করেন।

কোটা সংস্কারে শিক্ষার্থীদের এক দফা দাবি হলো– সব গ্রেডে সব প্রকার অযৌক্তিক ও বৈষম্যমূলক কোটা বাতিল করে সংবিধানে উল্লিখিত অনগ্রসর গোষ্ঠীর জন্য কোটাকে ন্যূনতম পর্যায়ে এনে সংসদে আইন পাস করে কোটা পদ্ধতিকে সংশোধন করতে হবে।  


প্রজন্মনিউজ২৪/আরাফাত

এ সম্পর্কিত খবর

কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে ১০ জন নিহত

২১, ২৩ ও ২৫ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত

ছাত্রলীগ-যুবলীগকে ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ ঘোষণার দাবি প্রসঙ্গে যা বললেন মার্কিন সরকারের মূখপাত্র

সাময়িকভাবে মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধ করা হয়েছে : পলক

কোটা ব্যবস্থার যৌক্তিক সমাধান চায় চবি শিক্ষক সমিতি

কোটা আন্দোলনে প্রাণহানির তদন্ত দাবি জাতিসংঘের

কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটিতে আটকা পুলিশ, উদ্ধারে এলো হেলিকপ্টার

আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসছে সরকার, বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন

উত্তরায় গুলিতে নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ শিক্ষার্থী নিহত 

বাড্ডায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতর থেকে পুলিশের রাবার বুলেট ও শিসার গুলিতে আহত অনেক

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ