যে দেশে বিদায়বেলায় ‘টাটা’ বললেই হতে পারে জেল

প্রকাশিত: ০৬ নভেম্বর, ২০২৩ ০৬:০৩:৪৭

যে দেশে বিদায়বেলায় ‘টাটা’ বললেই হতে পারে জেল

অনলাইন ডেস্ক: আমরা কারও কাছ থেকে বিদায় নেওয়ার সময় বাই বা টাটা বলে থাকি। যার অর্থ বিদায়। তবে বিশ্বের এমন এক দেশ আছে যেখানে আপনি কাউকে বিদায় জানাতে টাটা বললে সে আপনাকে পুলিশে ধরিয়ে দিতে পারে।

নিশ্চয়ই জানতে ইচ্ছা করছে কোন দেশে এমন হয় আর কেনই বা হয়। মূলত বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত দেশ আমেরিকায় আছে এমন নিয়ম। যেখানে কোনো কিছুতেই কারও সমস্যা নেই, যেখানে মানুষ অনেক উন্নত চিন্তা ভাবনা করে, সেখানে এমন আজব নিয়ম আছে।

মূলত ‘টাটা’ শব্দটি একটি ইংরেজি শব্দ। যার অর্থ, ‘গুড বাই’। যখনই কেউ আমাদের ছেড়ে চলে যায়, আমরা তাকে ‘বিদায়’ বা ‘টাটা’ বলি। তার মানে বিদায় এবং টাটা একই অর্থ। তবে আমেরিকায় টাটা বললে আপনি সমস্যায় পড়তে পারেন। তার মানে এই দেশে কাউকে বিদায় জানাতে হলে সবসময় বিদায় বা বাই বলুন।

আমেরিকান স্ল্যাং-এ টাটা শব্দের অর্থ ‘স্তন’। তাই ‘টাটাস’ আমেরিকাবাসীরা ব্যবহার করেন না কারণ এটি নারীদের প্রতি অবমাননাকর শোনায়। এছাড়া দেশে ‘সেভটাটাস’ নামে একটি সংস্থা রয়েছে। এটি স্তন ক্যানসার গবেষণার জন্য একটি তহবিল সংগ্রহকারী সংস্থা। তাই টাটা শব্দটি ওই রেজিস্ট্রার্ড ব্র্যান্ডের নামকরণের জন্য ব্যবহৃত হয়। বাম্পার স্টিকার, টি-শার্ট, পিন, অন্যান্য পণ্যদ্রব্য এবং প্যামফ্লেটেও শব্দটি লেখা থাকে।

তবে অবাক হবেন না। এই রকম ভিন্ন দেশে ভিন্ন নিয়মের দৃষ্টান্ত কিন্তু এই প্রথম নয়। বিশ্বে এমন একটি দেশ রয়েছে যেখানে স্ত্রীর জন্মদিন ভুলে যাওয়াকেও অপরাধ মানা হয়। আর তার জন্য কঠোর আইনও রয়েছে। অর্থাৎ যদি কোনো পুরুষ তার স্ত্রীর জন্মদিন ভুলে যান, তাহলে তাকে জেলে পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হয়। প্রশান্ত মহাসাগরের পলিনেশিয়ান অঞ্চলের ‘সামোয়া’র বাসিন্দাদের কাছে স্ত্রীর জন্মদিন ভুলে যাওয়া একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলেই বিবেচিত হয়।


প্রজন্মনিউজ২৪/এফএ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ