শতভাগ দেশী পণ্যের নিশ্চয়তায় ১০ম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা চলছে

প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর, ২০২২ ০২:২৯:০১ || পরিবর্তিত: ২৫ নভেম্বর, ২০২২ ০২:২৯:০১

শতভাগ দেশী পণ্যের নিশ্চয়তায় ১০ম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা চলছে

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শতভাগ দেশী পণ্যের সবচেয়ে বড় আয়োজনে ১০ম জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা চলছে । 

মেলা চলবে ২৪ নভেম্বর থেকে ০৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত । প্রতিদিন সকাল ১০.০০টা থেকে রাত ৮.০০টা পর্যন্ত মেলা প্রাঙ্গন দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। মেলায় অংশগ্রহনকারী উদ্যোতাদের মধ্য ৬০ শতাংশ নারী এবং ৪০ শতাংশ পরুষ ।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিতব্য শতভাগ দেশী পণ্যের এই মেলায় উদ্যোক্তাদের জন্য ৩২৫টি প্রতিষ্ঠানের ৩৫১টি স্টলের ব্যবস্থা রয়েছে।

তারা বলনে , দেশব্যাপী এসএমই প্রতিষ্ঠানসমূহ বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন করছেন। ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প-উদ্যোক্তাগণ অনেক উন্নত মানের পণ্য উৎপাদন করলেও বিপণন প্রক্রিয়ার যথার্থ জ্ঞানের অভাবে নানা সমস্যার সম্মুখীন হন। উদ্যোক্তাদের সক্ষমতা অর্জনের জন্য বাজার সংযোগ ও সম্প্রসারণ জরুরি। 

বাংলাদেশি এসএমই উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য প্রাপ্তিতে সহায়তা প্রদানে বহুমুখী বাজার সুবিধা সম্প্রসারণের গুরুত্ব বিদ্যমান। এসএমইদের পণ্য বিপণনের সুযোগ বৃদ্ধির জন্য ফাউন্ডেশন পণ্যের বাজারজাতকরণে সহায়তা প্রদান করে। যার অংশ হিসেবে রূপে এসএমই ফাউন্ডেশন সংশ্লিষ্ট উদ্যোক্তাদের পণ্যের প্রচার ও প্রসারে ২০১২ সাল থেকে জাতীয় এসএমই পণ্য মেলা আয়োজন করছে।

 ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প উদ্যোক্তা কর্তৃক উৎপাদিত পণ্যের প্রচার, প্রসার, বিক্রয় এবং স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাজার সম্প্রসারণ পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়ন, যোগাযোগ এবং সেতুবন্ধন তৈরিতে সহায়তা ভোক্তা এবং এসএমই উদ্যোক্তাদের পারস্পরিক সংযোগ স্থাপন  সেমিনার/মতবিনিময় সভা আয়োজনের মাধ্যমে পণ্য উৎপাদন ও সেবা সৃষ্টির ক্ষেত্রে ভোক্তাসহ বিভিন্ন মহলের সৃজনশীল মতামত ও পরামর্শ গ্রহণ প্রভৃতি।

এসএমই ফাউন্ডেশনের সাফল্য: এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজিত গত ৯টি জাতীয় এসএমই পণ্য মেলায় প্রায় দুই হাজার ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তা প্রায় ৩২.৮৮ কোটি টাকার পণ্য বিক্রয় এবং প্রায় ৫৩.৫০ কোটি টাকার অর্ডার গ্রহণ করে। 

সুযোগ পাবেন যারা: দেশীয় উৎপাদনকারী অথবা সেবামূলক মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের উদ্যোক্তারাই মেলায় পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রয়ের সুযোগ পাবেন। বিদেশী /আমদানিকৃত পণ্য মেলায় প্রদর্শন কিংবা বিক্রয় করা যাবে না।

যেসব প্রতিষ্ঠান অগ্রাদিকার দ্রওয়া হয়েছে: ‘জাতীয় শিল্পনীতি ২০২২’অনুযায়ী  উচ্চ  অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত খাত কৃষি/খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ও কৃষি যন্ত্রপাতি, আইসিটি, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, হালকা প্রকৌশল, পাট ও পাটজাত, প্লাস্টিক, হস্ত ও কারু শিল্পের সাথে সম্পৃক্ত এসএমই প্রতিষ্ঠানসমূহকে মেলায় অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার প্রদান করা হয়েছে।

এসএমই উদ্যোক্তাদের অবদানের স্বীকৃতি প্রদানের লক্ষ্যে এ বছর পাঁচটি ক্যাটাগরিতে ০৬জন উদ্যোক্তাকে ‘জাতীয় এসএমই উদ্যোক্তা পুরস্কার ২০২২’ প্রদান করা হয়েছে। 

এছাড়া, মেলায় আগত দর্শনার্থীদের মাঝে এসএমই ফাউন্ডেশনের পরিচিতি ও কর্মসূচি তুলে ধরার লক্ষ্যে এসএমই ফাউন্ডেশনের একটি সেক্রেটারিয়েট, মিডিয়া সেন্টার, রক্তদান কেন্দ্র, ক্রেতা-বিক্রেতা মিটিং বুথ, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের আওতাভুক্ত প্রতিষ্ঠানের স্টল থাকবে।

মেলা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি  শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এমপি বলেছেন, এসএমই উদ্যোক্তাদের আরো বেশি অর্থায়নের মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিতে সরকারের পাশাপাশি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ সবার ভূমিকা রাখা প্রয়োজন। আজ ২৪ নভেম্বর ২০২২, বৃহস্পতিবার সকাল ১০.৩০টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শিল্প মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং এমএসই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এই  অনুষ্ঠিত হয়েছে ।


প্রজন্মনিউজ২৪/এ আর

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন





ব্রেকিং নিউজ