বিএনপি রক্ত আর হত্যা ছাড়া কিছুই দিতে পারেনি : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর, ২০২২ ০৪:২১:০২

বিএনপি রক্ত আর হত্যা ছাড়া কিছুই দিতে পারেনি : প্রধানমন্ত্রী

রক্ত আর হত্যা ছাড়া বিএনপি আর কিছু দিতে পারেনি বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারা শুধু পারে মানুষের রক্ত চুষে খেতে।

বৃহস্পতিবার যশোর জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক জনসভায় তিনি এ সব কথা বলেন। 

দুপুর ২টা ৩৮ মিনিটে যশোর শামস-উল হুদা স্টেডিয়ামে জনসভা মঞ্চে আসেন প্রধানমন্ত্রী। মঞ্চে উঠে তিনি হাত নেড়ে নেতাকর্মীদের শুভেচ্ছা জানান। এ সময় উচ্ছ্বসিত নেতাকর্মীরা নানা স্লোগান দেন। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিচার পাওয়ার অধিকার আমার ছিল না। বাবা-মা ভাই-বোন সবাইকে হারিয়েছি। তারপরও এই বাংলায় ফিরে এসেছি। বাংলার মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করাই ছিল আমার লক্ষ্য। 

মানুষের মুখের গ্রাস কেড়ে নিয়ে বিএনপি নিজেদের উন্নয়ন করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তারা (বিএনপি) কিছুই দিতে পারে না, শুধু পারে মানুষের রক্ত চুষে খেতে। এটাই হচ্ছে বাস্তবতা।

রিজার্ভ নিয়ে সমালোচকদের জবাব দিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘অনেকে এখন রিজার্ভ নিয়ে বিভিন্ন সমালোচনা করছে। অথচ আমাদের সরকার রিজার্ভ রেকর্ড পরিমাণ বাড়িয়েছে। আর কোনো সরকার রিজার্ভ বাড়াতে পারেনি। পর্যাপ্ত রিজার্ভ হাতে রেখেই সব কাজ করছি আমরা। রিজার্ভের কোনো সমস্যা নেই, আমাদের সব ব্যাংকে পর্যাপ্ত টাকা আছে। সামনের দিনেও কোনো সমস্যা হবে না।’

তিনি বলেন, ‘রিজার্ভ নিয়ে বিভিন্ন ধরনের সমালোচনা শুনছি। অনেকে প্রশ্ন করেন, রিজার্ভ গেল কোথায়? আমরা তো রিজার্ভ অপচয় করিনি। মানুষের কল্যাণে কাজে লাগিয়েছি। জ্বালানি তেল কিনতে হয়েছে, খাদ্যশস্য কিনেছি। বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছি। করোনার টিকা ও চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করেছি। এসব কাজে রিজার্ভ থেকে খরচ করতে হয়েছে আমাদের। কারণ আমরা সবসময় মানুষের কথা চিন্তা করে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চালাচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা যশোরে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, মেডিকেল কলেজ, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণ করে দিয়েছি।  

কোনো মানুষ ভূমিহীন থাকবে না, ঠিকানাহীন থাকবে না উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি যখন ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় আসি, তখন থেকে সিদ্ধান্ত নিই একটি মানুষও ভূমিহীন থাকবে না। এবার আমরা ক্ষমতায় এসে ভূমিহীনদের ঘর তৈরি করে দিয়েছি। তাই ৩৫ লাখ মানুষকে ঘর নির্মাণ করে দিয়েছি। ঘর পেয়ে মানুষের জীবন পাল্টে গেছে। জাতির পিতার আকাঙ্ক্ষা পূরণ করেছি।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী জনসভায় উপস্থিত সবাইকে নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার ওয়াদা করতে বলেন। তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন কি না, ওয়াদা করুন।

যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারের পরিচালনায় জনসভায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা বক্তব্য দেন।
 


প্রজন্মনিউজ২৪/খতিব

এ সম্পর্কিত খবর

হরিণাকুন্ডুতে নিজ ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে যুবক খুন

দশ তারিখে পাকিস্তানিদের কাদায় আত্নসর্মন করবে বিএপি : তথ্যমন্ত্রী

পবিপ্রবি’র সাথে জিজেইউএস’র মধ্যে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত 

ঝিকরগাছায় অন্য মুক্তিযোদ্ধার ভাতা আত্মসাৎকারী বিল্লালের টিউবওয়েল দেওয়ার নামে প্রতারণা (পর্ব-২)

রৌমারীতে ভিডাব্লিউবিতে কার্ড নিশ্চিত করতে  অগ্রীম অর্থ আদায়ের অভিযোগ 

যশোরে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর উপজেলা সমাবেশ

পবিপ্রবি ছাত্রলীগের সব হলে কমিটি বিলুপ্ত ঘোষিত

কোটালীপাড়ায় ওয়ালটনের কিস্তি ক্রেতা সুরক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে র‍্যালি

১০ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী পাহারায় থাকবে: কাদের

বেনাপোল চেকপোস্টে অসুস্থ যাত্রীদের সেবায় হুইল চেয়ার উপহার

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ