রামগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী  পালিত

প্রকাশিত: ১৫ অগাস্ট, ২০২২ ০৪:৩৫:৩২

রামগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী  পালিত

সাজ্জাদুল ইসলাম, রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সকাল ১০টায় উপজেলা সম্মেলন কক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিত্বে শ্রদ্ধা, পুষ্পস্তবক অর্পণ শোক-র‌্যালী, চিত্রাংকন,আলোচনা সভা, মিলাদ-মাহফিল শেষে কাঙ্গালি ভোঁজ আয়োজন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে হাবীবা মীরা সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন লক্ষ্মীপুর-১ রামগঞ্জ সংসদীয় আসনের এমপি ড.  আনোয়ার হোসেন খাঁন। 

বাঙালির মহান নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চিরঞ্জীব, তার চেতনা অবিনশ্বর। মুজিব আদর্শে শানিত বাংলার আকাশ-বাতাস, জল-সমতল। প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের কাছে শেখ মুজিবুর রহমানের অবিনাশী চেতনা ও আদর্শ চির প্রবহমান থাকবে। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ভোর রাতে সেনাবাহিনীর কিছুসংখ্যক বিপদগামী সদস্য ধানমন্ডির বাসভবনে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে। ঘাতকরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, তাদের হাতে একে একে প্রাণ হারিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিনী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা, বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু শেখ রাসেলসহ পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল।  

জাতির পিতা চেয়েছিলেন ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বৈষম্যহীন সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের জনগণের মুক্তির যে স্বপ্ন দেখেছিলেন, তার সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যকে জয় করে বিশ্বসভায় একটি উন্নয়নশীল, মর্যাদাবান জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বাংলাদেশ। সারা বিশ্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল।

এই আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরনীয় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, লক্ষ্মীপুর-১, রামগঞ্জ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য ড. আনোয়ার হোসেন খান, এসময়ে তিনি বলেন,  বঙ্গবন্ধু না থাকলে, হয় তো আমরা এই সোনার বাংলাদেশ পেতাম না, ১৯৭৫ সালের ১৫ ই আগস্টে বঙ্গবন্ধুসহ তার সপরিবারকে হত্যা করা হয়। সেই সময় শোকের যে ছায়া পড়েছে সারা দেশে, সেই শোক আজো আমরা কেটে উঠতে পারি নাই। বাঙ্গালী জাতি হিসাবে আমরা আজো শোকাহত। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মনির হোসেন চৌধুরী,  উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট সফিক মাহমুদ পিন্টু, পৌর মেয়র বীরমুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটোয়ারী,  উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক  বীরমুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম রুহুল আমীন,  উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি মনিরা খাতুন, থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি মোহাম্মদ এমদাদুল হক,পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বেলাল আহম্মদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দেওয়ান বাচ্চু,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুরাইয়া আক্তার শিউলী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সৈকত মাহমুদ সামছু, কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ভূইয়া সুমন,উপজেলা আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক মোঃ সোহেল রানা, যুগ্ম আহবায়ক দেওয়ান ফয়সাল, যুগ্ম আহবায়ক রাশেদ আলম ভূইয়া।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুল হাসান ফয়সাল মাল, সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান শুভ, পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক রাশেদুল হাসান রাশেদ,পৌর কৃষকলীগের সভাপতি আবুল ফয়েজ রানা, ইউনিয়ন পরিষদের সকল চেয়ারম্যান, রামগঞ্জ পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের সকল কাউন্সিলরসহ রামগঞ্জ উপজেলা ও পৌরসভা থেকে আগত আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, সেচ্চাসেবকলীগ, শ্রমিকলীগসহ সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।


প্রজন্মনিউজ২৪/এমআরএ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ