ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ঝাঁঝ বাড়িয়ে চলছে কাঁচামরিচ

প্রকাশিত: ০৫ অগাস্ট, ২০২২ ০৩:৩১:২৯

ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ঝাঁঝ বাড়িয়ে চলছে কাঁচামরিচ

বাজারে অসহায় মানুষ। সপ্তাহের ব্যবধানে ফের বেড়েছে চালের দাম। সপ্তাহজুড়ে চালের বাড়তি দামের নাকাল সাধারণ মানুষ। বস্তাপ্রতি প্রায় ৫০ টাকা বেড়েছে সবধরনের চালের দাম। 

বৃষ্টি-বন্যার অজুহাতে ঊর্ধ্বমুখী রাজধানীর কাঁচাবাজারও। প্রায় সবধরনের সবজির দাম বেড়েছে। আর ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ঝাঁঝ বাড়িয়ে চলছে কাঁচামরিচ। প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৪০ টাকায়। এখন এক পোয়া কাঁচা মরিচ কিনতে ক্রেতাদের গুনতে হচ্ছে ৬০-৬৫ টাকাচ। অথচ গত সপ্তাহে এক পোয়া কাঁচা মরিচের দাম ৫০ টাকা ছিল।

টয়লেট্রিজ সামগ্রীর বাড়তি দামকে সঙ্গী করে চলা সাধারণ মানুষের কপালে নতুন যুক্ত হতে যাচ্ছে তেলের বাড়তি দাম। ব্যবসায়ীরা জানান, খোলা তেলের বাজার বন্ধ এবং ডলারের বাড়তি দামের প্রভাব আবারও পড়তে পারে সয়াবিন তেলে। 

আমিষের উৎস মুরগির দামে বড় কোনো পরিবর্তন নেই। ব্যবসায়ীরা ব্রয়লার মুরগি বিক্রি করছেন কেজি প্রতি ১৬০-১৬৫ টাকায়। যা গত সপ্তাহে ছিল ১৫০-১৫৫ টাকা। আর প্রতি কেজি পাকিস্তানি কক বা সোনালি মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২৮০-৩০০ টাকা, যা গত সপ্তাহে ছিল ২৬০-২৮০ টাকা।

ক্রেতারা বলছেন, দিন দিন দাম বৃদ্ধির যাঁতাকলে পৃষ্ট হয়ে যাচ্ছি আমরা। সামনে না খেয়ে মরতে হবে সবাইকে। এই কষ্টের শেষ কোথায় জানা নেই। তবে দাম নিয়ন্ত্রণে সরকারের আরও ভূমিকা রাখা দরকার।

বিক্রেতারা বলছেন, বাজার গত সপ্তাহের মতোই স্বাভাবিক আছে। সোনালি মুরগি বিক্রি করছি ২৭০ টাকা কেজি। ব্রয়লার বিক্রি করছি ১৬০ টাকা কেজি। দেশি মুরগি কেজিতে বিক্রি করছি ৫০০ টাকায়।


প্রজন্মনিউজ২৪/এমআরএ 

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন