হলের গাছের   কাঁঠাল খাওয়ায় নোবিপ্রবির দুই ছাত্রীকে শোকজ 

প্রকাশিত: ২৮ জুন, ২০২২ ০৬:৫৭:১০

হলের গাছের   কাঁঠাল খাওয়ায় নোবিপ্রবির দুই ছাত্রীকে শোকজ 

মোঃ ফাহাদ হোসেন,  নোবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) বিবি খাদিজা হলের দুই শিক্ষার্থীকে হলের কাঁঠাল গাছ থেকে কাঁঠাল খাওয়ায়  কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে হল কর্তৃপক্ষ। 

বিবি খাদিজা হলের প্রাধ্যক্ষ ড. গাজী মো. মহসিন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা গেছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২১ জুন সকাল ১০টার দিকে হলের অভ্যন্তরের কাঁঠাল গাছ থেকে বিনা অনুমতিতে কাঁঠাল ছিঁড়ে বস্তাবন্দি করে নিয়ে যায়। এর আগেও গাছ থেকে কাঁঠাল, কামরাঙ্গা, পেয়ারা হারিয়ে গেছে। কিন্তু কাউকে চিহ্নিত করা সম্ভব হয়নি। 

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গাছে ওঠে কাঁঠাল পারার সময় গাছ থেকে পড়ে বড় ধরনের দুর্ঘটনা কিংবা জীবননাশেরও আশঙ্কা ছিল। এতে বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা হল কর্তৃপক্ষ বড় ধরনের বিপদের সম্মুখীন হতে পারত। এ ঘটনার ব্যাখ্যা হল অফিসে লিখিতভাবে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হলো।

এমন নোটিশে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫ তম ব্যাচের এক শিক্ষার্থী  বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের  আবাসিক হলগুলো  শিক্ষার্থীদের জন্য। এর মধ্যে ফলগাছ থেকে কাঁঠাল পারায় নোটিশ দেওয়ায় আমরা লজ্জিত।  আমাদের কিছু বলার ভাষা নেই। যদি শিক্ষার্থীরাই ফল না খায়, তবে কে খাবে এসব ফল?

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেক শিক্ষার্থী বলেন,  হলের কর্মচারীরা নিয়মিত হলের আঙ্গিনার ফল পেড়ে নিয়ে গেলেও প্রশাসন কিছু বলে নাহ। শিক্ষার্থীরা নিতে গেলে কর্মচারীরা নিষেধ করে। হলের এসকল গাছের উপর শিক্ষার্থীদেরও অধিকার আছে । 

এ বিষয়ে বিবি খাদিজা হলের প্রাধ্যক্ষ গাজী মোহাম্মদ মহসিন বলেন, “ক্যাম্পাসের ফলমূল খাওয়ার অধিকার  শিক্ষার্থীদের রয়েছে, আমাদেরকে বললে আমরা তাদেরকে পেড়ে দিবো,তিনি আরও জানান শিক্ষার্থীরা যাতে করে কোনো ধরনের দূর্ঘটনার স্বীকার না হয়  সেজন্য সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য নিষেধ করা হয়েছে।”


প্রজন্মনিউজ২৪/ফিরোজ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ