ভোলা মুসলিম ঐক্য পরিষদের বিক্ষোভ-মিছিল ও সমাবেশ

প্রকাশিত: ১৮ জুন, ২০২২ ০৩:৩৫:৪১ || পরিবর্তিত: ১৮ জুন, ২০২২ ০৩:৩৫:৪১

ভোলা মুসলিম ঐক্য পরিষদের বিক্ষোভ-মিছিল ও সমাবেশ

ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি মুখপাত্র নুপুর শর্মা দিল্লি শাখার গণমাধ্যম প্রধান নবীনকুমার জিন্দাল কর্তৃক মুসলিম উম্মার প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও উম্মুল মুমিনীন হযরত আয়েশা (রাঃ) এর প্রতি অবমাননাকর ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করায় শুক্রবার(১৭জুন) পবিত্র জুম্মার নামাজের পর  মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে “ভোলা মুসলিম ঐক্য পরিষদ। বিক্ষোভ মিছিলটি ভোলা হাটখোলা জামে মসজিদের  প্রধান ফটক থেকে শুরু করে নতুন বাজার হয়ে আবার হাটখোলা জামে মসজিদে এসে সমাপ্তি ঘোষণা করে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও অন্যান্য ইসলামী সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা। উক্ত সমাবেশে বিভিন্ন উপজেলার ইসলামী ছাত্র আন্দোলনের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে সমবেত হন।

সম্প্রতি মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে ভারতীয় একটি গণমাধ্যমের বিতর্ক অনুষ্ঠানে আপত্তিকর মন্তব্য করেন বিজেপির মুখপাত্র নুপুর শর্মা। তার বক্তব্যে সহমত জানিয়ে দলটির দিল্লি শাখার গণমাধ্যম প্রধান নবীনকুমার জিন্দাল তার ভেরিফাইড আইডিতে একটি বার্তা টুইট করেন। এর পরই বিষয়টি নজরে আসে বিশ্বের মুসলমানদের।

বিক্ষোভ সমাবেশে অংশগ্রহনকারী বিভিন্ন ইসলামী দলের নেতৃবৃন্দরা বলেন, ভারতের এই বিজেপি হিন্দুত্ববাদী ফ্যাসিবাদী সরকার এবং তাদের নেতৃবৃন্দ প্রায়ই ইসলাম এবং হযরত মুহাম্মদ (সা.) সহ ইসলামের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে নানা রকম উস্কানি ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করে থাকে। যা মুসলিম উম্মাহ হিসেবে আমাদের পক্ষে মেনে নেয়া সম্ভব নয়।

সমাবেত জনতারা জানান, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও তার সহধর্মিণী উম্মুল মুমিনীন আয়েশা (রাঃ) কে নিয়ে ভারতের নূপুর শর্মা যে মন্তব্য করেছেন, তা অবশ্যই মুসলমানদের জন্য ন্যাক্কারজনক ঘটনা। শতকরা ৯২%  মুসলিম দেশ হিসেবে বাংলাদেশ সরকারের ভারতের এ কর্মকাণ্ডের জন্য রাষ্ট্রীয়ভাবে তীব্র প্রতিবাদ এবং অন্যান্য মুসলিম দেশের ন্যায় ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করে প্রতিবাদ জানাতে হবে।অন্যথায় বাংলাদেশে এই ব্যর্থ সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে,এবং বাংলাদেশের মুসলিমদের উচিত ভারতীয় সকল প্রকার পণ্য বয়কট করা।

সমবেত নেতৃবৃন্দরা আরও বলেন, ভারতের হিন্দুত্ববাদী সরকার ও সন্ত্রাসবাদি সংগঠনও ইসকনসহ তাদের লক্ষ্য হাসিলের উদ্দেশ্যে ইসলাম ও মুসলমানদের অবমাননা করছে। এবং বিশ্ব মানবতার মুক্তির দূত হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর নামে কটাক্ষ করছে। ভারতসহ পৃথিবীর অনেকগুলো রাষ্ট্র এরকম নেক্কারজনক কর্মকাণ্ডে পা বাড়াচ্ছে। এ সকল ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাতে আজ আমরা এখানে সমবেত হয়েছি।

এ সময় বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সংগ্রামী আমীর ও অন্যান্য ওলামায়ে কেরাম।

সাম্প্রতিক ন্যক্কারজনক ঘটনায় গোটা বিশ্বে অস্থিতি পরিবেশ সৃষ্টি হলেও ভারত সরকারের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সরকার এখন পর্যন্ত কোনো প্রকার ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।


প্রজন্মনিউজ২৪/ফিরোজ
 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন