রাবিতে ফ্যাটি লিভার, ওবেসিটি ও ডায়াবেটিস বিষয়ে সচেতনতামূলক সেমিনার অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: ২৬ মে, ২০২২ ১১:৩০:৩১

রাবিতে ফ্যাটি লিভার, ওবেসিটি ও ডায়াবেটিস বিষয়ে সচেতনতামূলক সেমিনার অনুষ্ঠিত

রাবি প্রতিনিধিঃ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) 'লাইফস্টাইল চেঞ্জ ফর ফ্যাটি লিভার, ওবেসিটি এ্যান্ড ডায়াবেটিস' শীর্ষক সচেতনতামূলক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২৫মে) দুপুর সাড়ে ১২টায় রাবি'র রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর একাডেমিক ভবনের ১১৯ নম্বর কক্ষে সেমিনারটি অনুষ্ঠিত হয় । এতে বক্তারা ফ্যাটি লিভার, ওবেসিটি ও ডায়াবেটিসের সম্পর্ক, এসব রোগের কারণ, প্রতিরোধ ও প্রতিকার বিষয়ে আলোকপাত করেন।

‘৫ম আন্তর্জাতিক নন-অ্যালকোহলিক স্টিয়াটো হেপাটাইটিস (ন্যাশ)’ দিবস উদযাপন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগ, বাংলাদেশ হেপাটোলজি সোসাইটি ও ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস লি. যৌথভাবে এটির আয়োজন করে।

সেমিনারে হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মাইনুদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন একই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সুমন হোসেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বাণিজ্য অনুষদের অধিকর্তা অধ্যাপক ড. ফরিদুল ইসলাম। স্পিকার হিসেবে ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে'র (বিএসএমএমইউ) কনসালটেন্ট হেপাটোলজিস্ট ডা. সাইফুল ইসলাম এলিন।

এক্সপার্ট প্যানেলে ছিলেন বাংলাদেশ হেপাটোলজি সোসাইটি'র সভাপতি অধ্যাপক ডা. মবিন খান, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. শাহিনুল ইসলাম ও বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক ডা. গোলাম আজম এবং আদ্ব-দ্বীন উইমেন্স মেডিকেল কলেজে'র হেপাটোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. আকমাত আলী।

সেমিনারের শেষের দিকে প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। প্রশ্নোত্তর পর্বটি পরিচালনা করেন কুর্মিটোলা জেনারেল হসপিটালের হেপাটোলজি বিভাগের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক ডা. তানভির আহমেদ।

এসময় ডা. শাহিনুল ইসলাম বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি ফ্যাটি লিভারের রোগী রয়েছে। বাংলাদেশে প্রায় সাড়ে চার কোটি বা প্রায় তিনজনে একজন এ রোগে আক্রান্ত। এদিকে যাদের বয়স ৪০ বছরের উপরে তাদের মধ্যেই সাধারণত এ রোগের প্রকোপ বেশি। এক গবেষণায় উঠে এসেছে, বর্তমানে গ্রামের নারীরা ফ্যাটি লিভার রোগে বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন। কারণ তারা আগের মত কায়িক পরিশ্রম করছেন না, কিন্তু তাদের  খাবারের পরিমাণ বেশি এবং স্বাস্থ্য সচেতনতা কম।

স্পিকারের বক্তব্যে বিএসএমএমইউ’এর  কনসালটেন্ট হেপাটোলজিস্ট ডা. সাইফুল ইসলাম এলিন বলেন, ফ্যাটি লিভার হলো যখন একজন মানুষের লিভার বা কলিজায় অতিরিক্ত চর্বি বা ফ্যাট জমা হওয়া। যার ফলে লিভারে প্রদাহ সৃষ্টি হয়। শিক্ষিত চাকুরিজীবী, বিশেষ করে যারা সবসময় বসে বসে কাজ করেন তারা এ রোগে বেশি আক্রান্ত হন। কেননা অতিরিক্ত বসে থাকা ধূমপানের চেয়েও বেশি ক্ষতিকর যা গবেষণায় প্রমাণিত। এছাড়া, অত্যধিক খাওয়া এবং বেশি পরিমাণ শর্করা জাতীয় খাবার খেলে এ সমস্যা হয়।

তিনি আরো বলেন, ফ্যাটি লিভার শনাক্তের একমাত্র উপায় আলট্রাসনোগ্রাম। এ থেকে মুক্তির জন্য সপ্তাহে ১৫০ ঘন্টা হাঁটাহাঁটিসহ কায়িক শ্রম, সাঁতার কাটা, সাইকেল চালানো ও বসার ক্ষেত্রে মেরুদন্ড সোজা রাখতে হবে। এছাড়া ওবেসিটি অধিকাংশ রোগের মা এবং ওবেসিটি থেকে ফ্যাটি লিভার এবং ডায়াবেটিস এর ঝুঁকি বাড়ে বলেও জানান তিনি।


প্রজন্মনিউজ২৪/এসএমএ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন





ব্রেকিং নিউজ