দিন দুপুরে রাবির শিক্ষক কোয়ার্টারে চুরি!

প্রকাশিত: ১৫ মে, ২০২২ ১২:১৩:০৪ || পরিবর্তিত: ১৫ মে, ২০২২ ১২:১৩:০৪

দিন দুপুরে রাবির শিক্ষক কোয়ার্টারে চুরি!

রাবি প্রতিনিধি: দিনদুপুরে ঘরের দরজা ভেঙে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক কোয়ার্টার থেকে টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার চুরির ঘটনা ঘটেছে। গত বৃহস্পতিবার (১২ মে) আনুমানিক দুপুর আড়াইটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পশ্চিম পাড়ার ডব্লিউ-৯/এফ নম্বর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নগরীর মতিহার থানায় মামলা দায়ের করেছেন বলে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার আলী তুহিন।

এই ঘটনায় ভুক্তভোগী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মাহমুদা আক্তার বলেন, ঈদের ছুটি কাটাতে বর্তমানে আমরা পঞ্চগড়ে অবস্থান করছি। বাসায় চুরির বিষয়টি একই কোয়ার্টারের পাশের ফ্ল্যাটের বাসিন্দাদের মাধ্যমে আমরা জানতে পেরেছি। জানার পরে গতকাল আমার স্বামী সেখানে গিয়েছেন।

জানতে চাইলে ওই শিক্ষকের স্বামী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সায়েন্সেস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আল মামুন ভুঁইয়া বলেন, কোয়ার্টারে আসার পর দেখি আমার বাসার সব কাপড়-চোপড় এলোমেলো অবস্থায় রয়েছে। হারানোর মধ্যে আমার স্ত্রীর সোনা ও রূপার অলংকার, একটা স্বর্ণ পদক এবং নগদ ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা হারিয়েছে। সোনার পরিমাণ হবে প্রায় চার থেকে পাঁচ ভরি। এর মধ্যে রয়েছে একটা গলার হার এবং একটা চেইন, একজোড়া কানের দুল আর আমার বাচ্চার হাতের রুলি। 

তিনি আরও বলেন, চোরেরা রুমে থাকা ল্যাপটপসহ সকল ইলেকট্রনিক ডিভাইসের কিছুই নিয়ে যায়নি। তবে সবমিলিয়ে তারা চার থেকে পাঁচ লক্ষ্য টাকার সামগ্রী চুরি করে নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় নগরীর মতিহার থানায় মামলা দায়ের করেছেন বলে জানান এই ভুক্তভোগী।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার আলী তুহিন বলেন, চুরির ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষক একটি মামলা দায়ের করেছেন। ইতোমধ্যে মামলার তদন্ত শুরু হয়ে গেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, চুরির খবর শোনামাত্রই আমি সে বাসা পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। তারা বাসায় কেউ না থাকার সুযোগে ঘরের দরজা ভেঙ্গে তাদের নগদ টাকা এবং স্বর্ণালঙ্কার চুরি করে নিয়ে যায়। এসময় চোরেরা পাশের ফ্ল্যাটে যারা ছিল তাদেরকে বাহিরে থেকে তালা লাগিয়ে দেয় যাতে করে তারা বের হতে না পারে।

প্রক্টর আরও বলেন, দিনদুপুরে চুরির বিষয়টি আমাদের আশ্চর্য করেছে। এটা খুবই সাহসের কাজ। খুব জানাশোনা না থাকলে এই চুরিটা কেউ করতে পারবে না। ভুক্তভোগী যেহেতু মামলা করেছে। আশাকরি পুলিশ চোরদের তদন্ত সাপেক্ষে খুঁজে বের করবে। এঘটনায় আমি নিরাপত্তা কর্মীদের সঙ্গে কথা বলেছি এবং তাদের সর্তক করেছি।


প্রজন্মনিউজ২৪/রেদওয়ান
 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ