এটিএম বুথ থেকে কোটি টাকা উধাও, গ্রেফতার ৮

প্রকাশিত: ০৬ মার্চ, ২০২২ ০৬:০২:৫৮

এটিএম বুথ থেকে কোটি টাকা উধাও, গ্রেফতার ৮

প্রজন্ম ডেস্ক: অভিনব কৌশলে জালিয়াতির মাধ্যমে একটি বেসরকারি ব্যাংকের দুই শতাধিক এটিএম বুথ মেশিন থেকে কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার সাথে জড়িত চক্রের  আট জনকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। 
 
   এটিএম বুথে ডাকাতি, হত্যা ও অবৈধভাবে কার্ড জালিয়াতির মাধ্যমে অর্থ উত্তোলনের ঘটনায় দেশি বিদেশি বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। বাংলাদেশে বিভিন্ন ব্যাংকের এটিএম বুথের ব্যবস্থাপনা থার্ড পার্টি বা আউট সোর্র্সিং এর মাধ্যমে সম্পন্ন করে থাকে। থার্ড পার্টি টাকা স্থাপন, নিরাপত্তা, কারিগরী ত্রæটি ইত্যাদি বিষয়টি পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব পালন করে থাকে। সাম্প্রতিক সময়ে একটি বেসরকারি ব্যাংকের অডিটে এটিএম বুথের টাকার বেশকিছু গড়মিল পরিলক্ষিত হয়। ফলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ থার্ড পার্টি পরিবর্তন করে।

 তারপরও অনিয়ম ও গড়মিল পরিলক্ষিত হতে থাকে। বিষয়টির প্রেক্ষিতে আস্থার স্থল হিসেবে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ও থার্ড পার্টি বিষয়টি নিয়ে র‌্যাবের শরণাপন্ন হন।
ফলশ্রুতিতে র‌্যাব গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি ও ছায়া তদন্ত শুরু  করে। ছায়া তদন্তের এক পর্যায়ে র‌্যাব উদঘাটন করে যে, থার্ড পার্টি পরিবর্তিত হলেও টাকা লোডার ও অন্যান্য কারিগরী দলের কোন পরিবর্তন হয়নি। ফলশ্রুতিতে র‌্যাব তদন্ত অব্যাহত রাখে।
এরই ধারাবাহিকতায় গত রাতে র‌্যাব সদর দপ্তর গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল রাজধানীর মিরপুর, হাজারীবাগ, যাত্রাবাড়ী ও বাড্ডা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানে আটক করে , (১) আব্দুর রহমান বিশ্বাস (৩২), পিতাঃ সিকিম আলী, সদর, মানিকগঞ্জ, (২) মোঃ তারেক আজিজ (২৫), পিতাঃ রজমান আলী, কোতয়ালী, যশোর, (৩) তাহমিদ উদ্দিন পাঠান @ সোহান (২৮), পিতাঃ আহসান উদ্দিন পাঠান, শ্রীপুর, গাজীপুর, (৪) মোঃ রবিউল হাসান (২৭), পিতাঃ মোঃ আলাউদ্দিন হাওলাদার, এয়ারপোর্ট, বরিশাল, (৫), হাবিবুর রহমান @ ইলিয়াস (৩৬), পিতাঃ তাজ উদ্দিন শেখ, কাপাসিয়া, গাজীপুর, (৬) মোঃ কামরুল হাসান (৪৩), পিতাঃ মৃত চাঁদ আলী মন্ডল, মহেশপুর, ঝিনাইদহ, (৭) মোঃ সুজন মিয়া (৩১), পিতাঃ মৃত শুক্কুর আলী, বাজিতপুর, কিশোরগঞ্জ এবং (৮) মোঃ আব্দুল কাদের (৪৩), পিতাঃ মৃত শামছুল হক, দেবহাটা, সাতক্ষীরা দেরকে গ্রেফতার করা হয়।  
  
গ্রেফতারকৃত আব্দুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে এই চক্রের মূলহোতা। সে বিগত ৩/৪ বছর পূর্বে একটি সিকিউরিটিজ কোম্পানীতে চাকুরী নেয়। তার দায়িত্বপূর্ণ এলাকা মিরপুর, কালশী, বেনারশি, সেনপাড়া, ইব্রাহিমপুর ও কচুক্ষেত এলাকা। সে প্রতিদিন বিভিন্ন এটিএম বুথে কৃত্রিম জ্যাম সৃষ্টির মাধ্যমে বিপুল পরিমান টাকা আত্মসাৎ করে আসছে। এ দলের সদস্যরা শিক্ষিত। 

জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানা যায়, গ্রেফতারকৃত আব্দুর রহমান, সোহাগ পাঠান, হাবিব ও কামরুল এটিএম বুথে লোডিং, কলিং ও মেনটেইনেন্স এর কাজ করে। গ্রেফতারকৃত কাদের, সুজন, রবিউল ও তারেক আজিজ এটিএম বুথে শুধু লোডিং এর কাজ করে।
গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।


প্রজন্মনিউজ২৪/মনিরুল

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন