বিশ্বের ২৭তম বোলার হিসেবে বোল্টের ৩০০ উইকেট

প্রকাশিত: ১০ জানুয়ারী, ২০২২ ০৭:১৩:০৮

বিশ্বের ২৭তম বোলার হিসেবে বোল্টের ৩০০ উইকেট

ক্রাইস্টচার্চে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৪৩ রানে ৫ উইকেট নেন নিউজিল্যান্ডের বাঁ-হাতি পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। যার মাধ্যমে টেস্ট ক্রিকেটে ৩০০ উইকেট ক্লাবে প্রবেশ করেন তিনি। নিউজিল্যান্ডের চতুর্থ বোলার হিসেবে এই মাইলফলক স্পর্শ করেছেন বোল্ট। আর বিশ্বের ২৭তম বোলার হিসেবে ৩০০ উইকেট নেন তিনি। এমন অর্জনে আনন্দিত বোল্ট।

ম্যাচ শেষে বোল্ট বলেন, নিশ্চিতভাবে এটা আমার কাছে অনেক কিছু। আমি জানি, আগামীতে এটির অংশীদার অনেকেই হবে। এটি কঠোর পরিশ্রম, ফিটনেস ঠিক রাখা ও পারফরমেন্সের ফসল।

২০১১ সালে টেস্ট অভিষেক হয় বোল্টের। হোবার্টের অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট খেলতে নামেন তিনি। ১১ বছরে ৭৫টি টেস্ট খেলে ৩০০ উইকেটের মালিক হলেন বোল্ট। বোল্টের আগে নিউজিল্যান্ডের হয়ে এই নজির গড়েছেন স্যার রিচার্ড হ্যাডলি, ড্যানিয়েল ভেট্টোরি ও টিম সাউদি।

সতীর্থ সাউদির সামনেই ৩০০ উইকেট শিকারের ক্লাবে নাম তুলেন বোল্ট। তিনি বলেন, এমন মুহূর্তে সাউদিকে আমার সাথে পাওয়া খুব বিশেষ কিছু। ড্যানিয়েল ভেট্টোরি ও স্যার রিচার্ড হ্যাডলির মতো নামের পাশে যোগ দিতে পারাটা খুবই বিশেষ কিছু। এই ম্যাচ জেতা ও সিরিজে ফেরা হবে আরও বিশেষ।

সতীর্থ সাউদিকে নিয়ে বোল্ট বলেন, আমি নিশ্চিত, একসাথে আরও কয়েক বছর উইকেট নিতে পারবো আমরা। আমাদের বন্ধুত্ব অনেক বছরের পুরনো। অনূর্ধ্ব-১৭ দলে আমাদের দেখা হয়েছিল। দেশের হয়ে আমাদের ক্যারিয়ার সম্ভবত ১০ বছরের বেশি, আমি তার কাছ থেকেও শিখছি।

ক্রাইস্টচার্চে সবুজ ঘাসের উইকেটে সুইং ও বাউন্সের সুবিধা নিয়ে বাংলাদেশকে কুপোকাত করেন বোল্ট। তার বোলিং তোপে ১২৬ রানেই অলআউট হয় বাংলাদেশ। মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে টেস্টে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন বোল্ট। ওই টেস্টটি ৮ উইকেটে হেরেছিল নিউজিল্যান্ড। ম্যাচে নিজেদের সেরাটা দিতে পারেনি কিউইরা।

তবে ক্রাইস্টচার্চে সবুজ ঘাসে দারুন চমক দেখিয়েছে নিউজিল্যান্ডের বোলাররা। বোল্টের পাশাপাশি সাউদি ৩টি ও কাইল জেমিসন ২টি উইকেট নেন।

ভিন্ন ভেন্যুতে এসে এভাবে জ্বলে উঠাটা, টেস্ট ক্রিকেটের সৌন্দর্য বলে মনে করেন বোল্ট। তিনি বলেন, ‘এটাই টেস্ট ক্রিকেটের সৌন্দর্য। ভিন্ন ভেন্যুতে ভিন্ন চিত্র এসেছে। উইকেটের ঘাস ও বাতাস এতে ভূমিকা রেখেছে। আমার মনে হয় শুরুতেই কয়েকটা উইকেট তুলে নিতে পারলে, ছন্দ পাওয়া যায়। আমরা যা চেয়েছি সেটাই করতে পেরেছি।

প্রজন্মনিউজ২৪/মুজাহিদ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন