রাজবাড়ীর দশ হাজার হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ-রসুন পানির নিচে

প্রকাশিত: ০৮ ডিসেম্বর, ২০২১ ০৭:৪৯:৫১

রাজবাড়ীর দশ হাজার হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ-রসুন পানির নিচে

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে রাজবাড়ীতে টানা তিন দিন বৃষ্টির পানিতে ডুবে গেছে কৃষকের স্বপ্ন। ডুবে গেছে পেঁয়াজ, রসুন, গম, আলু, সরিষাসহ বিভিন্ন আবাদি ফসল। দেশে পেঁয়াজ উৎপাদনে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে রাজবাড়ী জেলা। এখানে সাধারণত দুই জাতের পেঁয়াজ আবাদ হয়ে থাকে। মুড়িকাটা ও হালি পেঁয়াজ। আর এক সপ্তাহ পরই মুড়িকাটা পেঁয়াজ ঘরে ওঠার কথা। তবে খেতে বৃষ্টির পানি জমে থাকায় পেঁয়াজ নষ্ট হওয়ায় আশঙ্কা করছেন চাষিরা। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় এমন ক্ষতির আশঙ্কা কৃষকদের। তবে এতে কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে, সে তথ্য জেলা কৃষি অফিসে নেই।

বালিয়াকান্দির নারুয়ার কৃষকরা জানান, অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজের দানা কিনে আগেভাগে আফর দিয়েছিলাম। পেঁয়াজের হালিও বেশ তরতাজা হয়েছিল। এ মাসের শেষ দিকে ওই হালি মাঠে রোপণ করার কথা ছিল। কিন্তু হঠাৎ টানা তিন দিনের বৃষ্টির পানির নিচে থেকে পচে গেছে। আবার নতুন করে দানা কিনে চারানোর সময় ও অর্থ কৃষকদের কাছে নেই। তাই এবার পেঁয়াজের জন্য বিখ্যাত নারুয়ার মাঠে পেঁয়াজ চাষ হবে খুবই কম। বৃষ্টিতে অন্যান্য সবজির মাঠ তলিয়ে গেছে।

রাজবাড়ী সদরের উড়াকান্দা গ্রামের কৃষক রশিদ মণ্ডল জানান, ‘এক বিঘা জমিতে মুড়িকাটা পেঁয়াজ আবাদ করেছিলাম। গত তিন দিনের বৃষ্টিতে পেঁয়াজ খেতে পানি জমে আছে। দুই এক দিনের মধ্যে জমে থাকা পানি সরে না গেলে পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে যাবে।’

আরেক কৃষক বরকত হোসেন বলেন, ‘দুই বিঘা জমিতে টমেটো রোপণ করেছিলাম। এরই মধ্যে টমেটো ধরতে শুরু করেছে। আর কয়েক দিন পরে টমেটো বাজারে বিক্রি করতে পারব। কিন্তু খেতে পানি জমে রয়েছে। নালা কেটে পানি সরানোর চেষ্টা করছি। এখন পর্যন্ত কোনো কৃষি কর্মকর্তা খোঁজ নিতে আসেননি।’

রাজবাড়ী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক এস এম শহীদ নূর আকবর গণমাধ্যমকে জানান, জেলার পাঁচটি উপজেলায় ৩২ হাজার হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ, রসুন, গম, ছোলা, আলুসহ বিভিন্ন কৃষিপণ্য আবাদ হয়েছে। এর মধ্যে ৭ হাজার হেক্টর জমির ফসল পানিতে তলিয়ে আছে। গত তিন দিনের টানা বৃষ্টিতে কী পরিমাণ ফসলের ক্ষতি হয়েছে, সেই তালিকা তাদের কাছেও নেই। উপসহকারী কৃষি অফিসাররা ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের তথ্য সংগ্রহ করছেন। তথ্য সংগ্রহ শেষে ক্ষতির পরিমাণ বলা যাবে।

প্রজন্ম/এসকে

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ