বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি, আ.লীগ থেকে মেয়র আব্বাস বহিষ্কার

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর, ২০২১ ০৭:১২:৩৭

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি, আ.লীগ থেকে মেয়র আব্বাস বহিষ্কার

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নির্মাণ নিয়ে কটূক্তি ও বিতর্কিত বক্তব্য দেওয়ায় পৌরসভা আওয়ামী লীগের আহ্বায়কের পদ থেকে কাটাখালি পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের জরুরি বৈঠকে আব্বাসকে পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়কের পদ থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাজদার রহমান সরকার বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলীর সভাপতিত্বে জরুরি বৈঠকে আব্বাস আলীকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।একই সঙ্গে কেন দলীয় সদস্য পদ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না জানতে চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়ারও সিদ্ধান্ত হয়। এ ছাড়াও স্থায়ী বহিষ্কারের জন্য দলের কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে সুপারিশ পাঠানো হবে।

নৌকা প্রতীকে দুইবারের নির্বাচিত মেয়র আব্বাস রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এবং কাটাখালি পৌরসভার আহ্বায়ক। আব্বাসের ফাঁস হওয়া অডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপকভাবে ভাইরাল হওয়ায় রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে ব্যাপক তোলপাড়।

আব্বাসের এ ধরনের ধৃষ্টতাপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিবাদে ইতোমধ্যে মুক্তিযোদ্ধাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক এবং সামাজিক সংগঠন কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে।

ফাঁস হওয়া অডিওতে জীবন দিয়ে হলেও বঙ্গবন্ধুর মুর্যাকল বসাতে দেওয়া হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন মেয়র আব্বাস। এ ঘটনায় রাজশাহীতে আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মী ও প্রগতিশীল মহলে তীব্র ক্ষোভ এবং ব্যাপক অসন্তোষ বিরাজ করছে। মেয়র আব্বাসকে অবিলম্বে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার এবং মেয়র পদ থেকে অপসারণের দাবি উঠেছে।

আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা বলছেন, পারিবারিকভাবেই আব্বাস বিতর্কিত। আব্বাস এ ধরনের বক্তব্য দিয়ে চরম ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। তিনি বঙ্গবন্ধু এবং অসাম্প্রদায়িক চেতনায় কুঠারাঘাত করেছেন।

গত রোববার রাত থেকে আব্বাসের অডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে।

এক মিনিট ৫১ সেকেন্ডের ওই অডিওতে মেয়র আব্বাস বলেন, ‘সিটি গেট আমার অংশে। একটি ফার্ম এটি বিদেশি স্টাইলে সাজিয়ে দিবে; ফুটপাত, সাইকেল লেন টোটাল আমার অংশটা। কিন্তু একটু ঠেকে গেছি গেটটা নিয়ে। একটু চেঞ্জ করতে হচ্ছে। যে মুর‌্যালটা দিয়েছে বঙ্গবন্ধুর সেটা ইসলামী শরীয়ত মতে সঠিক নয়। এ জন্য আমি ওটা থুব না, সব করবো তবে শেষ মাথাতে যেটা ওটা (মুর‌্যাল) থাকবে না।’

প্রজন্ম/এসকে

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ