৭৩তম জন্মদিন উপলক্ষে

হুমায়ূনকে নিয়ে ভালো চর্চা হোক, এটাই প্রত্যাশা : শাওন

প্রকাশিত: ১৩ নভেম্বর, ২০২১ ১১:১৯:০২ || পরিবর্তিত: ১৩ নভেম্বর, ২০২১ ১১:১৯:০২

হুমায়ূনকে নিয়ে ভালো চর্চা হোক, এটাই প্রত্যাশা : শাওন

জনপ্রিয় কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ৭৩তম জন্মদিন আজ। নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে এ দিনটি উপযাপন করছে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। গাজীপুরের পিরুজালী নুহাশপল্লীতে কেককাটাসহ নানা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

শনিবার (১৩ নভেম্বর) সকাল থেকেই হুমায়ূন ভক্তরা গাজীপুরের নুহাশপল্লীতে আসেন। ভক্তদের পাশাপাশি তার স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন ছেলে নিশাত ও নিনিত, প্রকাশকসহ তার স্বজনরা অনুষ্ঠানে যোগদেন।

কথাশিল্পী হুমায়ূন আহমেদ বাংলাদেশের সম্পদ। সে সম্পদ নিয়ে ভালোমতো চর্চা হোক, যেন ভুল চর্চা না হয় এটায় প্রত্যাশা প্রয়াত কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওনের।

শাওন বলেন, যারা হুমায়ূনকে ভালোবাসেন, তাদের অনেকেই তাকে নিয়ে কাজ করতে চান। তবে একটা অনুরোধ করছি, তাকে নিয়ে যা ইচ্ছে তা কেউ করবেন না। গত ১০ বছর ধরে তার সৃষ্টিকর্ম নিয়ে যেনতেনভাবে কাজ করার চেষ্টা বা তাকে নিয়ে হঠাৎ করে একটা সিনেমা বানিয়ে ফেলা, একটা বই লিখে ফেলা বিষয়টি নিয়ে আমার খুব খারাপ লেগেছে।

তিনি আরও বলেন, হুমায়ূন আহমেদকে বিভিন্ন ইউনিভার্সিটিতে পিএইচডি হচ্ছে। অনেকেই তাকে নিয়ে চর্চা করছেন। সেই চর্চাটা বাড়ুক, ছাত্ররা হুমায়ূন আহমেদ সম্পর্কে জানুক। তবে তাকে নিয়ে যেন ভুল চর্চা না হয় সেটাই আমার প্রত্যাশা। কারণ হুমায়ূন আহমেদ বাংলাদেশের সম্পদ, সে সম্পদ নিয়ে ভালোমতো চর্চা হোক।

নুহাশপল্লীর ব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম বুলবুল বলেন, ১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার কুতুবপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন হুমায়ূন আহমেদ। তার প্রথম নাম ছিল শামসুর রহমান। পরে তার নাম পাল্টে হুমায়ূন আহমেদ রাখা হয়। তার ডাক নাম ছিল কাজল। ২০১২ সালের ১৯ জুলাই তিনি আমেরিকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। পরে তাকে গাজীপুরের নুহাশপল্লীর লিচুগাছ তলায় দাফন করা হয়।

নুহাশপল্লীর ভাস্কর আসাদুজ্জামান খান বলেন, শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে শাওন তার দুই ছেলেকে নিয়ে নুহাশপল্লীতে আসেন। রাত ১২টা ১ মিনিটে নুহাশপল্লীর কর্মচারীরা ১ হাজার ১টা মোমবাতি প্রজ্জ্বলন এবং কেক কাটেন।

প্রজন্মনিউজ২৪/ইমরান হোসাইন

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন