বিশ্ববিদ্যালয় খোলার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে বসেছেন শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত: ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০২:০৬:২৩ || পরিবর্তিত: ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০২:০৬:২৩

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে বসেছেন শিক্ষামন্ত্রী

প্রজন্মনিউজ ডেস্কঃ বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খোলার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভিসিদের সাথে বৈঠকে বসেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় ভার্চুয়াল মাধ্যমে এ বৈঠক শুরু হয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কবে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দেয়া যায়, তা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এদিকে ১২ সেপ্টেম্বর থেকে একযোগে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলেছে। গতকাল সোমবার থেকেও খুলে গেছে মেডিক্যাল কলেজগুলো। এখন আলোচনায় রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়।

এ সভার পর বিশ্ববিদ্যালয়গুলো কবে খুলবে, তার ধারণা পাওয়া যেতে পারে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো, বিশেষ করে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত নেবে একাডেমিক কাউন্সিল এবং সিন্ডিকেট সভা।

এর আগে গত ২৬ আগস্ট শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এক সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছিল, শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়াসহ কিছু শর্ত পূরণ সাপেক্ষে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আগামী ১৫ অক্টোবরের পর থেকে নিজ নিজ সিদ্ধান্তে খুলতে পারবে। তখন আরো আলোচনা হয়েছিল, ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার কাজটি শেষ করে ১৫ দিন অপেক্ষা করা হবে।

তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অক্টোবরের আগে সশরীরে শ্রেণি কার্যক্রম শুরুর সম্ভাবনা কম। পুরোপুরি প্রস্তুতি এখনো শেষ করতে পারেনি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো; বিশেষ করে শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার কাজটি এখনো অনেক বাকি। এমনকি কত শিক্ষার্থীকে টিকা দেয়া হলো, তার সুনির্দিষ্ট তথ্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসিকে এখনো দিতে পারেনি অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয়।

এর আগে ৫ সেপ্টেম্বর সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছিলেন, স্কুল-কলেজ খোলার দিনক্ষণ ঠিক হয়ে গেছে, এখন দেশে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো কবে খুলবে সেই সিদ্ধান্ত নিতে চলতি সপ্তাহেই ভিসিদের সঙ্গে বসা হবে।

কবে খুলতে পারে বিশ্ববিদ্যালয় এমন প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘ভিসিদের সাথে কথা হয়েছিল যে অন্ততপক্ষে সব শিক্ষার্থী এক ডোজ টিকা নেয়ার পরে দুই সপ্তাহ সময় দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা হবে। সেই আলোকে মধ্য অক্টোবর ঠিক করা হয়েছিল।

তিনি বলেন, ‘এখন যে পরিস্থিতি, তাতে আমি আবারো এই সপ্তাহে ভিসিদের সাথে হয়ত বৈঠক করব। সেখানে (বৈঠক) অবস্থা আবারো পর্যবেক্ষণ করে যদি তারা সিদ্ধান্ত নেন যে তারা অক্টোবরের আগেই বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়ার জন্য প্রস্তুত আছেন…।

দীপু মনি বলেন, ‘যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সিদ্ধান্ত তাদের সিন্ডিকেট ও অ্যাকাডেমিকভাবে হয়ে থাকে, তাই এ সিদ্ধান্ত তারাই নেবেন। কিন্তু আমরা তাদের সাথে আবারো একটি বৈঠক করব।

করোনাভাইরাসের কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এর মধ্যে কয়েকবার চেষ্টা করেও এই মহামারির কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আর খোলা সম্ভব হয়নি। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও দ্রুত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। এরপর থেকেই প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন সংশ্লিষ্টরা।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৮ মার্চ দেশে করোনা সংক্রমণ দেখা দেয়। এরপর ১৭ মার্চ থেকে সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করা হয়। এ পর্যন্ত গত ১৭ মাসে দফায় দফায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি বাড়ানো হয়। করোনা সংক্রমণ অব্যাহত থাকায় সবশেষ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান সাধারণ ছুটি আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

প্রজন্মনিউজ২৪/ইমরান হোসাইন

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ