লেবাননে হিজবুল্লাহর ঘাটিতে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল

প্রকাশিত: ০৫ অগাস্ট, ২০২১ ১২:১০:৩৪

লেবাননে হিজবুল্লাহর ঘাটিতে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল

লেবানন সীমান্তে সশস্ত্র শিয়া গোষ্ঠী হিজবুল্লাহর ঘাঁটি লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। বুধবার ইসরায়েলি সেনাবাহিনী জানায়, আগের দিন সন্ধ্যায় তাদের সেনাবাহিনী লক্ষ্য করে লেবানন সীমান্ত থেকে গুলি চালানোর পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে এই হামলা চালানো হয়েছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এ খবর জানিয়েছে।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনী টুইটারে লিখেছে, ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলে অপারেশনাল কার্যক্রমকালে লেবানন থেকে আইডিএফ বাহিনী লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। এর জবাবে আমরাও লেবানন সীমান্তে হিজবুল্লাহ পর্যবেক্ষণ পোস্টে পাল্টা গুলি এবং বিমান হামলা চালাই।
গত বুধবার লেবানন থেকে ছোড়া দুটি রকেট ইসরায়েলে গিয়ে পড়ার পর গোলাবর্ষণ করে তার জবাব দিয়েছিল ইসরায়েল, এবার বিমান হামলাও চালালো তারা।

ইসরাইলি বাহিনী আরো বলছে, এটি একটি মারাত্মক ঘটনা। আমরা যে কোন হুমকি মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছি।

দুই দেশের মধ্যবর্তী জাতিসংঘ চিহ্নিত ব্লু লাইন সীমান্তের মানারায় এ হামলা ও পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময়ে বাসিন্দাদের নিরাপদ আশ্রয়ে যাওয়ার আহ্বান জানানো হয়।

গত সপ্তাহে ওমান উপসাগরে ইসরায়েলের একটি কোম্পানির পরিচালনাধীন অয়েল ট্যাংকারে হামলায় দুই জন নিহত হওয়ার পর থেকে মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে উত্তেজনা বিরাজ করছে। ওই হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ইসরায়েল। ইরান হামলার দায় অস্বীকার করেছে। 

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, কেউ দায় স্বীকার না করলেও লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলের যে এলাকাগুলো থেকে ইসরায়েলে রকেট হামলা চালানো হয়েছে তা ইরান সমর্থিত হিজবুল্লাহ গেরিলাদের নিয়ন্ত্রণে। তবে ওই রকেট হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

উল্লেখ্য, ইসরাইল ও লেবানন কার্যত যুদ্ধে লিপ্ত রয়েছে। সেখানে অস্ত্রবিরতি পর্যবেক্ষণে নিয়োজিত রয়েছে জাতিসংঘ বাহিনী ইউএনআইএফআইফিল। এটি ১৯৭৮ সালে গঠিত হয়। ইসরাইল ও ইরান সমর্থিত হিজবুল্লাহ’র মধ্যে ২০০৬ সালে মাসব্যাপী যুদ্ধের পর জাতিসংঘ বাহিনীর তৎপরতা আরো জোরদার করা হয়।

প্রজন্মনিউজ২৪/সি এইচ খালেকুজ্জামান

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ