আবারো সংঘর্ষে আর্মেনিয়া-আজারবাইজান

প্রকাশিত: ২৯ জুলাই, ২০২১ ০১:২৫:১৫

আবারো সংঘর্ষে আর্মেনিয়া-আজারবাইজান

গোলযোগপূর্ণ নাগোর্নো-কারাবাখে নতুন করে আজারবাইজান এবং আর্মেনিয়ার সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে আর্মেনিয়ার তিন সেনা নিহত হয়েছে বলে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

নতুন করে সৃষ্ট এ সংঘাতের জন্য একে অপরকে দায়ী করেছে দেশ দুটি। গতকাল আর্মেনিয়া দাবি করেছে, আজেরি বাহিনী আকস্মিক তাদের সেনাদের ওপর হামলা চালিয়েছে।

এতে তাদের তিন সেনা প্রাণ হারিয়েছেন। আহত হন আরও দুজন। সীমান্ত এলাকায় সংঘাতে জড়ানোর জন্য আজারবাইজানকে দায়ী করেছে দেশটি। আর্মেনিয়ার স্টক গ্রামের সীমান্ত এলাকার কাছেই আজারবাইজানের কেলবাজার অঞ্চল। ওই সীমান্তেই উভয় দেশের নিরাপত্তারক্ষীদের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধের দাবি করেছে আর্মেনীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। 

জবাবে আজারবাইজানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, কালবাজারে আজারবাইজানের সেনা অবস্থানে আর্মেনীয় সেনারা উস্কানিমূলক হামলা চালালে তার জবাব দেয়া হয়েছে। এতে আজারবাইজানের দুই সেনা আহত হয়েছে বলে আজেরি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় উল্লেখ করেছে। সংঘর্ষের জন্য আর্মেনিয়া সম্পূর্ণভাবে দায়ী বলে তারা এক বিবৃতি দিয়েছে। সকাল দশটা থেকে আজারবাইজানের সেনারা যুদ্ধবিরতি মেনে চলতে শুরু করে কিন্তু আর্মেনীয় সেনারা ট্যাংক এবং মর্টারের গোলাবর্ষণ অব্যাহত রাখে।

তবে আর্মেনিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দাবি, বিনা উসকানিতেই আজেরি বাহিনী হামলা চালিয়েছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা তাদের খবরে জানিয়েছে, স্থানীয় সময় সকাল ১০টার দিকে দুই পক্ষের মধ্যে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব দেয় রাশিয়া। বাকু মস্কোর প্রস্তাব মেনে নিলেও ইয়েরেভান তাতে সাড়া দেয়নি। আর্মেনিয়া এখনো আজারবাইজানের লক্ষ্যবস্তুতে হামলা অব্যাহত রেখেছে, এমন অভিযোগ বাকুর। উত্তেজনা সৃষ্টির জন্য আর্মেনিয়াকেই পুরো দায় নিতে হবে বলেও জানিয়েছে দেশটি।

উল্লেখ্য, নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের পুরনো সংঘাত গত বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে নতুন করে আবার শুরু হয়। রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন জানান, ওই সংঘাতে অন্তত পাঁচ হাজার মানুষ নিহত হয়েছেন। পরে নভেম্বরে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় যুদ্ধ বন্ধে উপনীত হয় দুই দেশ।

প্রজন্মনিউজ২৪/আব্দুল খালেক

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ