লকডাউন: চতুর্থ দিনে রাজধানীর সড়কে বেড়েছে যান চলাচল

প্রকাশিত: ০৪ জুলাই, ২০২১ ১২:০৫:৫৮ || পরিবর্তিত: ০৪ জুলাই, ২০২১ ১২:০৫:৫৮

লকডাউন: চতুর্থ দিনে রাজধানীর সড়কে বেড়েছে যান চলাচল

রাজধানীসহ সারাদেশে কঠোর বিধিনিষেধ বা লকডাউন চলছে। গত বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে এই বিধিনিষেধের কড়াকড়ি। আজ রোববার কঠোরতার চতুর্থ দিন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হওয়া নিষিদ্ধ। অকারণে বাইরে বের হলে আটক বা অর্থদণ্ড দেয়া হচ্ছে। তারপরও রাজধানীর সড়কে যানবাহন ও মানুষের উপস্থিতি গত তিন দিনের তুলনায় এই উপস্থিতি আরো বেড়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও তৎপর হয়েছে আগের চেয়ে বেশি। কোনো কোনো চেকপোস্টে যানবাহনের দীর্ঘ সারিও দেখা গেছে।

রোববার (৪ জুলাই) সকাল সাড়ে ৭টা থেকে সাড়ে ৮টা পর্যন্ত রাজধানীর মোহাম্মদপুর, আসাদগেট, ধানমন্ডি ২৭ ও ৩২, রাসেল স্কয়ার, পান্থপাথ, কারওয়ান বাজার, মগবাজার, মালিবাগ, রাজারবাগ, বাংলামটর, শাহবাগ, অ্যালিফ্যান্ট রোড, সাইন্সল্যাবসহ বিভিন্ন সড়ক ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। রাজধানীর সড়কজুড়ে পণ্যবাহী গাড়ি, রিকশা ও অ্যাম্বুলেন্সের পাশাপাশি ব্যক্তিগত মোটরসাইকেল, প্রাইভেট কার ও মাইক্রোবাস সমানতালে চলছে।

এর মধ্যে কারওয়ানবাজার, শাহবাগ, আসাদ গেট ও সাইন্সল্যাব মোড়ে ট্রাফিক সিগনালে যানজটে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় বিভিন্ন ধরনের যান বাহন। একইভাবে রাসেল স্কয়ারসহ বিভিন্ন সড়কে পুলিশ চেক পোস্টে যানজট সৃষ্টি হয়। যদিও সকাল থেকেই রাজধানীর আকাশ মেঘলা রয়েছে। গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিও হচ্ছে। জরুরি সেবাসংশ্লিষ্ট ছাড়া সরকারি বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এমনকি বৃহস্পতিবার থেকে ব্যাংকও বন্ধ রয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, সোমবার থেকে ব্যাংক খোলার কথা। কিন্তু তারপরও রাজধানীর সড়ক যানবাহনে পরিপূর্ণ।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তারা বলছেন, চলমান লকডাউনে ব্যক্তিগত গাড়ি রাস্তায় চলার কোনো সুযোগ নেই। তবে প্রতিষ্ঠানের নামে থাকা গাড়িগুলো রাস্তায় চলতে পারবে। চেকপোস্টে প্রত্যেকটা গাড়ি থামানো হচ্ছে। অপ্রয়োজনে বের হওয়া গাড়িগুলোকে মামলাও দেওয়া হচ্ছে।

ডিএমপির মতিঝিল জোনের ডিসি আ. আহাদ বলেন, সকাল থেকে গাড়ি বেশি। অনেকেই মতিঝিল, গুলশান বা উত্তরায় অফিসে যাওয়ার জন্য ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে বের হয়েছেন। আমরা তাদের কথায় সন্তুষ্ট হলেই কেবল গাড়ি ছাড়ছি। না হলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে। কেউ রাস্তায় বের হলে যুক্তিক কারণ না বলতে পারলে আইনগত কোন ছাড় দেয়া হচ্ছে না। আমরা পাড়া-মহল্লায় নজরদারির মধ্যে রেখে কাজ করছি বলে তিনি মন্তব্য করেন।

ধানমন্ডি ট্রাফিক জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার জাহিদ আহসান বলেন, আজ সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবস। এছাড়া লকডাউনের চতুর্থ দিন। বিগত তিনদিনের তুলনায় আজ গাড়ির চাপ একটু বেশি। গাড়ির চাপ বেশি থাকলেও আমাদের সদস্যরা কঠোরভাবেই দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। এছাড়া বেশকিছু গাড়ি আমরা ঘুরিয়ে দিয়েছি। কারণ রাস্তায় বের হওয়ার পক্ষে যথাযথ কারণ তাদের ছিল না।

গাবতলী চেকপোস্টে দায়িত্ব পালন করা দারুসসালাম ট্রাফিক জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার ইত্তেখায়রুল ইসলাম বলেন, বিভিন্ন কল-কারখানার যেসব কর্মকর্তা-কর্মচারী আছেন তাদের গাড়ি আমরা বেশি দেখছি। কলকারখানার নামে যেসব গাড়ি আছে আমরা তাদের অ্যালাউ করছি। বাকিদের অ্যালাউ করছি না। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি। রাস্তায় যেহেতু গাড়ি বেশি নেমেছে, আর কঠোর চেকিং হচ্ছে, তাই জট একটু হবেই।#

প্রজন্মনিউজ২৪/ফাহাদ

এ সম্পর্কিত খবর

ইভ্যালির গ্রাহকরা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে-টিক্যাব

দাম শুনলে আঁতকে উঠবেন, বিশ্বের সবচেয়ে দামী সবজির

ইভ্যালির রাসেল-নাসরিন দম্পতি আটক

বরিশালে কোতোয়ালি ও এয়ারপোর্ট থানায় নতুন যানবাহন দিল বিএমপি

নীলফামারী টু কক্সবাজার চালু হচ্ছে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট

ইভ্যালির সিইও রাসেল ও তার স্ত্রী গ্রেপ্তার

রাসিক মেয়রের সাথে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনালিস্টরা  

ফের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধে আইনি নোটিশ

ব্রিটিশ মন্ত্রিসভায় রদবদল, নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্রাস

ভিকারুননিসার অধ্যক্ষের ফোনালাপ ফাঁসের তদন্ত রিপোর্ট দাখিলের নির্দেশ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ