দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলায়

প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন ৩৫০ টি অসহায় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার

প্রকাশিত: ২০ জুন, ২০২১ ১১:২২:৩১

প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন ৩৫০ টি অসহায় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার

মোঃ নাজমুল ইসলাম, দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে মাথা গোঁজার ঠাঁই পাচ্ছেন দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার ৩৫০ টি অসহায় ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার। আজ রবিবার (২০ জুন) সকাল সাড়ে ১০ টায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সারা দেশের ন্যায় বীরগঞ্জে বাড়ি বরাদ্দের উদ্বোধন করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তৈরি হচ্ছে এসব গৃহহীনদের স্বপ্নের বাড়ি। এই কার্যক্রমকে সফল করতে স্থানীয় প্রশাসন দিন-রাত কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। উপজেলার শিবরামপুর ইউনিয়নে ২৫টি, পলাশবাড়ী ইউনিয়নে ১৮ টি, শতগ্রাম ইউনিয়নে ১৫ টি, পাল্টাপুর ইউনিয়নে ৪০ টি, সুজালপুর ইউনিয়নে ২৩ টি, নিজপাড়া ইউনিয়নে ৭১ টি, সাতোর ইউনিয়নে ২৫ টি, ভোগনগর ইউনিয়নে ২৬টি, মোহাম্মদপুর ইউনিয়নে ৪৬ টি, মোহনপুর ইউনিয়নে ২১ টি ও মরিচা ইউনিয়নের ৪০ টি পাকা ঘরবাড়ি নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। প্রতিটি ঘরের খরচ ধরা হয়েছে ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা।

সরেজমিনে উপজেলায় বিভিন্নি এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, অত্র উপজেলায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ভিক্ষুক, প্রতিবন্ধী, বিধবা, স্বামী পরিত্যক্তা, ভূমিহীন ও গৃহহীনকে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। বরাদ্দকৃত বাড়িতে পদার্পণের বার্তায় গৃহহীনরা এখন আনন্দে ভাসছেন। বাড়িগুলোতে ব্যবহার করা হয়েছে লাল রংঙের টিন। দুই রুম বিশিষ্ট বাড়িতে রয়েছে একটি রান্না ঘর ও টয়লেট। বাড়িগুলোর নির্মাণকাজ ও রংঙের কাজ শেষ।

মরিচা ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আতাহারুল ইসলাম চৌধুরী হেলাল বলেন, যোগ্য পিতার যোগ্য সন্তান অসহায় দারিদ্র বঞ্চিত মানুষের নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পিতার আদর্শে অটুট থেকে দরিদ্র ও অসহায় মানুষের কল্যাণে নিজেকে আত্মনিয়োগ করেছেন।

তিনি বলেন, ২য় পযার্য়ে মরিচা ইউনিয়ন ৪০ টি ঘর বরাদ্দ পেয়েছে। স্থানীয় দিনাজপুর -১ ( বীরগঞ্জ – কাহারোল) আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল, উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম নিয়মিতভাবে নির্মান কাজ বাস্তবায়ন করতে সহযোগিতা করছেন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. ছানাউল্লাহ্ জানান, কাজে যেন কোনো রকমের অনিয়ম না হয় সেই দিকে ইউএনও স্যার সর্বদাই বিশেষ নজর রেখেছেন। সরকারি ব্যবস্থাপনায় বীরগঞ্জে প্রতিটি ঘরের জন্য খাসজমি সহ দুই কক্ষের পাকা ঘর তৈরি করে দেওয়া হয়েছে। এসব ঘরের প্রতিটিতে একটি রান্না ঘর, টয়লেট ও সামনে খোলা বারান্দা রয়েছে। 

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো.ডালিম সরকার বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে দুই শতাংশ সরকারি খাস জমির ওপর গৃহনির্মাণ করে জমির দলিলসহ ৩৫০ উপকারভোগীর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল কাদের বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সারা দেশের ন্যায় বীরগঞ্জ উপজেলায় প্রকৃত ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মধ্যে বাড়ি নির্মাণ ও ভূমি বন্দোবস্ত কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।বাড়িটি যাতে টেকসই এবং মানসম্মত হয় সেজন্য মনিটরিং কমিটি নিয়মিত তদারকি করেছেন।

সাবেক সাংসদ ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, ঘর নির্মাণের কাজ সঠিকভাবে তদারকি করা হচ্ছে। সারাদেশের ন্যায় বীরগঞ্জ উপজেলায় কেউ গৃহহীন থাকবে না। মুজিববর্ষে গৃহহীনদের ঘর নির্মাণের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার করা অঙ্গীকার বাস্তবায়িত হচ্ছে। 

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কারিগর বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের ধারাবাহিক উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে দেশের সকল মানুষকে এই জনবান্ধব সরকারের পাশে থাকার আকুল আবেদন জানান। এ ব্যাপারে ঘর বরাদ্দ পাওয়া আনন্দে আত্মহারা উপকার ভোগী পরিবারদের সকল সদস্যগন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

প্রজন্মনিউজ২৪/এফএম

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ