ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ৬ জনের বিরুদ্ধে পরীমনির মামলা

প্রকাশিত: ১৪ জুন, ২০২১ ১২:৫৩:৫৮

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ৬ জনের বিরুদ্ধে পরীমনির মামলা

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমণি ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টার অভিযোগে ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলার করেছেন। 

সোমবার (১৪ জুন) সাভার থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়। এতে নাসির উদ্দিন ও তার বন্ধু অমির নাম উল্লেখ করে আরও ৪ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। এর আগে সকালে রূপনগর থানার মাধ্যমে লিখিত অভিযোগ করেন পরীমণি।

মামলায় এক নম্বর আসামি করা হয়েছে নাসির ইউ মাহমুদ নামের ব্যবাসয়ীকে। তিনি উত্তরা বোট ক্লাবের সদস্য। এতে আরও পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে। অন্যদের নাম তাৎক্ষণিকভাবে পওয়া যায়নি।

এরআগে রোববার রাত পৌনে ১১টার দিকে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন ঢাকাই ছবির আলোচিত নায়িকা পরীমনি। তিনি জানান, অমি নামে একব্যক্তি তার বেশ ক’বছরের পরিচিত। তার বাসার ডিজাইনার জিমির বন্ধু অমি। ওইসূত্রে পরীর বাসায় মাঝে মাঝে আসেন অমি। একদিন এসে বলেন কি একটা প্রজেক্টে টাকা ইনভেস্ট করবেন। তাই আমার সঙ্গে বসতে চান। ওই প্রজেক্ট নিয়ে কথা বলতেই অমি উত্তরা ক্লাবে নিয়ে যান পরীকে।

পরীমনি জানান, এ সময় সঙ্গে তার মেকাপম্যান এবং ডিজাইনারও ছিলেন। সেখানে খাওয়া-দাওয়া করানো হয় পরীমনিসহ সবাইকে। এরপর একে একে লোকজন চলে যায়। তখন পরীমনিকে ড্রিংকস করতে বাধ্য করা হয়। মেকআপম্যানকে নির্যাতন করা হয়। একপর্যায়ে পরীমনিকেও নির্যাতনের চেষ্টা চালান ক্লাবের সাবেক প্রেসিডেন্ট নাসির উদ্দিন। পরীমনি বাধা দিলে তাকে মারধর করা হয়। জোর করে তার মুখে মদ ঢেলে দেওয়া হয়। হঠাৎ পরীমনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এসময় তাকে লাথি মারেন নাসির উদ্দিন।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনার পর তারা রাতেই বনানী থানায় যান। সেখানে অভিযোগ দিতে গেলে পুলিশ তাদের টেস্টের জন্য হাসপাতালে যেতে বলে। পরে পরীমনি রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে যাচ্ছিলেন। যাওয়ার পথেই তিনি কিছুটা সুস্থবোধ করলে ফিরে বাসায় চলে আসেন।

বাসায় ফেরার পর তিনি দুইদিন অসুস্থ ছিলেন। এরপর তিনি বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু কোথাও থেকে কোনো সাড়া পাননি। পরে রোববার রাতে নিজের ফেসবুক পেজে স্ট্যাটাস দেন।

রোববার সন্ধ্যায় দেওয়া ফেসবুক পোস্টে পরীমনি তাকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন। এর প্রতিকার চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চান তিনি।

ফেসবুক পোস্টে তিনি বলেন, আমি শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছি। আমাকে রেপ এবং হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই।
প্রধানমন্ত্রী বরাবর এ স্ট্যাটাসে পরীমনি বলেন, এ বিচার কই চাইব আমি? কোথায় চাইব? কে করবে সঠিক বিচার? আমি খোঁজে পাইনি গত চারদিন ধরে। থানা থেকে শুরু করে আমাদের চলচ্চিত্রবন্ধু বেনজির আহমেদ আইজিপি স্যার; আমি কাউকে পাইনি। এসময় প্রধানমন্ত্রীকে মা সম্বোধন করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, আমার এখন আপনাকে (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) দরকার মা। আমার বেঁচে থাকার জন্যে আপনাকে খুব দরকার মা। আমি বাচঁতে চাই, আমাকে বাঁচিয়ে নাও মা।

প্রজন্মনিউজ২৪/শাওন

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ