টঙ্গীতে অপহরণের ৮ ঘণ্টার মধ্যে উদ্ধার, গ্রেফতার ৫

প্রকাশিত: ১০ জুন, ২০২১ ০১:১৬:১৩

টঙ্গীতে অপহরণের ৮ ঘণ্টার মধ্যে উদ্ধার, গ্রেফতার ৫

যোবায়ের রহমান, গাজিপুর প্রতিনিধি: গাজীপুরের টঙ্গীতে অপহরণের ৮ ঘণ্টা পর খোকন মোল্লা (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করেছে টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশ। খোকন সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের কুলিয়ারচর গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে। তিনি প্রায় ১০ বছর ধরে টঙ্গীর পশ্চিম থানার গাজীপুরা এলাকার ফারুক হোসেনের বাড়িতে কেয়ারটেকার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

মঙ্গলবার (৮ জুন) দিবাগত রাতে টঙ্গীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এসময় অপহরণকারী দলের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।
 
গ্রেফকৃতরা হলেন, শেরপুরের নকলার চর বসন্তিপুর গ্রামের কুতুব উদ্দিনের ছেলে মজনু মিয়া (২৭), রংপুরের পীরগঞ্জের তুলারামপুর গ্রামের কামরুল ইসলামের ছেলে আল আমিন (২৫), টঙ্গী পশ্চিম থানার খরতৈল (সুখিনগর) এলাকার আবু তালেবের ছেলে মো. ফয়সাল (৩১), নাটোরের নলডাঙ্গার পশ্চিম সোনা পাতিল (আরিয়া পাড়া) গ্রামের ইউসুফ মিয়ার ছেলে স্বপন মিয়া (২২) ও টঙ্গী পূর্ব থানা এলাকার আলী হোসেনের ছেলে মো. ওয়াসিম (৩৪)।

টঙ্গী পশ্চিম থানা সূত্রে জানা যায়, টঙ্গীতে মামুন বাহিনীর প্রধান মামুনসহ কয়েকজন মিলে কিছুদিন ধরে খোকনকে এলাকায় থাকতে হলে টাকা দিতে হবে বলে ভয়ভীতি দেখাচ্ছিলেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত সোমবার (৭ জুন) রাত ৮টায় নামাজ পড়তে যাওয়ার সময় মোটরসাইকেলে করে ৭-৮ জন খোকনের গতিরোধ করেন। এরপর তাকে একটি ইজিবাইকে করে তুলে নিয়ে যান। পরে অপহরণকারীরা খোকনের পরিবারের কাছে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন ও তার ওপর শারীরিক নির্যাতন চালান। পরবর্তীতে খোকনের স্বজনরা তাদের দেয়া বিকাশ নম্বরে ২৫ হাজার টাকা পাঠায়।
 
পরে টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে প্রায় আট ঘণ্টা পর টঙ্গীর খৈরতুল বালুর মাঠ এলাকা থেকে খোকনকে উদ্ধার করা হয়। এছাড়া প্রযুক্তি ব্যবহার করে টঙ্গীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত পাঁচজন অপহরণকারীকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ১২ হাজার টাকা জব্দ করা হয়।
 
টঙ্গী পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শাহ আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গ্রেফতারকৃতদের বুধবার দুপুরে সাতদিনের রিমান্ড চেয়ে তাদেরকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।#

প্রজন্মনিউজ২৪/এফএম

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন