আ.লীগের দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, প্রাণ গেল ইতালী প্রবাসীর

প্রকাশিত: ১৪ এপ্রিল, ২০২১ ০১:৩৭:২২

আ.লীগের দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, প্রাণ গেল ইতালী প্রবাসীর

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় আওয়ামী লীগের প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের বিরোধের জের ধরে নিহত হয়েছেন একজন ইতালি প্রবাসী।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) দিবাগত রাতে ভাঙ্গা পৌরসভার নওপাড়া বাসস্ট্যান্ডে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মো: মাসুদ মিয়া (৪৮) ভাঙ্গা পৌর সদরের গজারিয়া গ্রামের হারুনুর রশিদ মিয়ার ছেলে। মাসুদ মিয়া ১৫ বছর আগে কর্মসংস্থানের জন্য ইতালি যান। সেখানে তিনি সপরিবারে বসবাস করতেন। দুই ছেলে ও স্ত্রী রয়েছে তার। ভাঙ্গা পৌরসভার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি দেশে আসেন তিনি। নির্বাচন শেষে আগামী ২০ এপ্রিল তার ফিরে যাওয়ার কথা ছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে মাসুদ মিয়া নওপাড়া বাসস্ট্যান্ডের কাছে একটি চায়ের দোকানে বসে ছিলেন। এ সময় একদল হামলাকারী ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাকে এলাপাথাড়ি কুপিয়ে ফেলে রেখে যায়। স্থানীয়রা মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
 
স্থানীয়রা জানান, নিহত মাসুদ মিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক ফকিরের সমর্থক। গতকাল দুপুরে তাদের নিজ দলীয় প্রতিপক্ষ ভাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এমদাদুল হক বাচ্চুর সমর্থক প্রিন্স এলাকায় বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালানোর ঘটনায় মাসুদ মিয়ার সাথে বাকবিতণ্ডা হয়। ওই ঘটনার জের ধরেই মাসুদকে হত্যা করা হয়েছে বলে রাজ্জাক ফকির অভিযোগ করেন। তবে এ ব্যাপারে এমদাদুল হক বাচ্চুর বক্তব্য জানা যায়নি।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, এলাকায় প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে রাজ্জাক ফকির ও এমদাদুল হক বাচ্চুর সমর্থকদের মধ্যে তীব্র দ্বন্দ্ব চলে আসছে। তারা দু’জনেই বর্তমানে স্থানীয় সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সনের অনুগামী। এলাকায় প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে তাদের দুই গ্রুপের মধ্যে একাধিকবার রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় দুই পক্ষ থেকেই ভাঙ্গা থানা ও আদালতে বিভিন্ন সময় একাধিক মামলাও দায়ের করা হয়।

এদিকে, ইতালি প্রবাসী মো: মাসুদকে হত্যার খবরে গজারিয়া গ্রামসহ নওপাড়ায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ভাঙ্গা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। একইসাথে পুলিশ ভাঙ্গা হাসপাতাল থেকে মাসুদের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ লুৎফর রহমান বলেন, মারামারির সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। পরে হাসপাতাল থেকে ইতালি প্রবাসী ওই ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।#

প্রজন্মনিউজ২৪/ফাহাদ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ