মোটরসাইকেলে জেলার সীমানা পেরোতে পারবে না পুলিশ

প্রকাশিত: ০৫ মার্চ, ২০২১ ০৬:২৫:৩৪ || পরিবর্তিত: ০৫ মার্চ, ২০২১ ০৬:২৫:৩৪

মোটরসাইকেলে জেলার সীমানা পেরোতে পারবে না পুলিশ

মোটরসাইকেলে ব্যবহার করে পুলিশ কর্মরত কোনও ব্যক্তি সরকারি কাজে, ব্যক্তিগত কাজে কিংবা ছুটিতে এক জেলা থেকে আরেক জেলায় ভ্রমন কারতে পারবে না। এই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে পুলিশ সদরদফতর থেকে।  

 

পুলিশ সদরদফতর সূত্র বলছে, সম্প্রতি পুলিশ সদস্যদের প্রায়ই সরকারি ও ব্যক্তিগত কাজে মোটরসাইকেলে করে এক জেলা থেকে অন্য জেলায় ভ্রমণ করতে দেখা যায়। এতে অনেকে সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়ে গুরুতর আহত বা নিহত হচ্ছেন। মূলত এ কারণেই এই নিষেধাজ্ঞা। কোনও পুলিশ সদস্য এই নির্দেশনা অমান্য করলে, তা মারাত্মক শৃঙ্খলাপরিপন্থী আচরণ হিসেবে বিবেচিত হবে। 

 

পুলিশ সদরদফতরের অতিরিক্ত ডিআইজি কনফিডেন্সিয়াল আব্দুল্লাহীল বাকী স্বাক্ষরিত নির্দেশনা গত ২৪ ফেব্রুয়ারি পুলিশের সকল ইউনিট প্রধানদের জানানো হয়। এর তিন দিন আগে ২১ ফেব্রুয়ারি রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে মোটরসাইকেল গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে এইচ এম রনি ওরফে হাদী রনি নামে এক পুলিশ সদস্য নিহত হন। একই ঘটনায় তার স্ত্রী আহত হন।

 

রোড সেফটি ফাউন্ডেশন নির্বাহী পরিচালক সাইদুর রহমান বলেন, মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণহানি চরমভাবে বেড়েছে। এসব দুর্ঘটনায় নিহতদের প্রায় সবার বয়স ১৩ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে। ৬টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ১৬ জন যুবক নিহত হয়েছে, ২ জন গুরুতর আহত। অর্থাৎ প্রতিটি মোটরসাইকেলে গড়ে ৩ জন করে আরোহী ছিল। সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ে অজ্ঞতা, অবহেলা ও ট্রাফিক আইনের প্রয়োগহীনতা এর প্রধান কারণ। এই প্রেক্ষাপটে সরকার মোটরসাইকেলের নিবন্ধন ফি কমানো এবং সিসি  সীমা উন্মুক্ত করার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাতে দুর্ঘটনা বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।

 

গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে সংগঠনটি বলছে, ফেব্রুয়ারিতে মোট দুর্ঘটনা ঘটেছে ৪০৬টি। নিহত ৫১৭ জন এবং আহত ৬৫৯ জন। নিহতের মধ্যে নারী ৯৭, শিশু ৬৮। তার মধ্যে পুলিশ সদস্য ৮ জন, র‌্যাব সদস্য ১ জন নিহত হয়েছেন।

প্রজন্মনিউজ২৪/এসএ
 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ