আবারও নির্বাচিত হলেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম 

প্রকাশিত: ০১ মার্চ, ২০২১ ০৪:২৭:০০

আবারও নির্বাচিত হলেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম 

আ.শ.ম. এহসানুল হোসেন তাইফুর:- 
দ্বিতীয় বারের মত যশোর কেশবপুর পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হলেন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান মেয়র রফিকুল ইসলাম। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী বিএনপি মনোনীত আব্দুস সামাদ বিশ্বাস (ধানের শীষ) পেয়েছেন ২ হাজার ৩১৩, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী আব্দুল কাদের (হাতপাখা) পেয়েছেন ৪১০ ভোট। কেশবপুর পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ২০ হাজার ৭৭৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১০ হাজার ১৮৫ জন ও মহিলা ভোটার রয়েছেন ১০ হাজার ৫৪০ জন। মোট প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যা ১৪ হাজার ৬৪৯। বৈধ ১৪ হাজার ৬১১। অবৈধ ৩৮। ৭০.৫১ শতাংশ ভোট পড়েছে। প্রাপ্ত ভোট গণনা শেষে রবিবার রাতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার এম এম আরাফাত হোসেন রফিকুল ইসলামকে বিজয়ী ঘোষণা করেন। কেশবপুর পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের ১০টি কেন্দ্রে রফিকুল ইসলাম পেয়েছেন ১১ হাজার ৮৮৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী ছিলেন বিএনপির ধানের শীষের আব্দুস সামাদ বিশ্বাস। তিনি পেয়েছেন ২ হাজার ৩১৩ ভোট এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী আব্দুল কাদের (হাতপাখা) পেয়েছেন ৪১০ ভোট। পৌর সভার সবকয়টি কেন্দ্রেই সর্বাধিক ভোট পেয়েছেন নৌকা প্রতীকের রফিকুল ইসলাম। বর্তমান মেয়র রফিকুল ইসলাম পর পর দু’বার নির্বাচনে বিজয়ী হলেন। অন্যদিকে, তার আগে বিএনপির আব্দুস সামাদ বিশ্বাস দুটি নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছিলেন। পঞ্চম ধাপে যশোরের কেশবপুর পৌরসভায় চতুর্থ বারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হল। রবিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত কেশবপুর পৌরসভায় ভোটগ্রহণ চলে। পরে গণনা শেষে রাতে মেয়রসহ সাধারণ ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে বিজয়ীদের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। কাউন্সিলর পদে ১ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমান আতিয়ার রহমান (উটপাখি) ৮৫৪ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী লিটন গাজী (টেবিল ল্যাপ্প) ৬৫৬ পেয়েছেন। অপর দিকে সোহেল হাসান (পানির বোতল) ৩৮ ভোট পেয়েছেন। ২ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর মশিয়ার রহমান (পানির বোতল) ১ হাজার ২৬৩ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী হাবিবুর রহমান (উটপাখি) ১ হাজার ৬৩ ভোট পেয়েছেন। ৩ নম্বর ওয়ার্ডে জি এম কবির (উটপাখি) ৬২৬ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী নাছির উদ্দীন (পাঞ্জাবি) ৪৩৬ ভোট পেয়েছেন। অপর দিকে বর্তমান কাউন্সিলর জামাল উদ্দিন সরদার (ফাইল কেবিনেট) ১৯২, শেখ কামরুজ্জামান (পানির বোতল) ২৮৭, মোরশেদ আলী (ব্লাক বোর্ড) ৮৫, আব্দুর রাজ্জাক (টিউব লাইট) ৩৫, মশিয়ার রহমান (ব্রিজ) ২৩, প্রদীপ চক্রবর্ত্তী (ডালিম) ৪৪, শওকত হোসেন (ঢেঁড়স) ১৮৮, মনিরুজ্জামান (টেবিল ল্যা¤প) ৬০ ও আজিবর মোড়ল (গাজর) ৫৫ ভোট পেয়েছেন। ৪ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর আবজাল হোসেন বাবু (পানির বোতল) ১ হাজার ৬৩৭ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী জাহাঙ্গীর আলম (উটপাখি) ২৬৩ পেয়েছেন। অপর দিকে কুতুব উদ্দিন বিশ্বাস (ডালিম) ১৩৪ ভোট পেয়েছেন। ৫ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর শহিদুজ্জামান বিশ্বাস (উটপাখি) ৭৯৩ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী মেহেদী হাসান (পানির বোতল) ১০৫ ভোট পেয়েছেন। ৬ নম্বর ওয়ার্ডে মনোয়ার হোসেন (উটপাখি) ৫৪৯ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী জাকির হোসেন (পানির বোতল) ৩৭৩ ভোট পেয়েছেন। অপর প্রার্থী আনিছুর রহমান (পাঞ্জাবি) ১৪৯ ভোট পেয়েছেন। ৭ নম্বর ওয়ার্ডে কামাল খান (পাঞ্জাবি) ১ হাজার ২৯৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী আক্তারুজ্জামান (পানির বোতল) ৪৯০ ভোট। অর প্রার্থী মানিক লাল সাহা (উটপাখি) ৪০, ওয়াজেদ খান ডবলু (ডালিম) ৬০ ভোট পেয়েছেন। ৮ নম্বর ওয়ার্ডে আব্দুল হালিম মোড়ল (ডালিম) ৫১৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী মফিজুর রহমান খান (উটপাখি) ৫০৭ ভোট পেয়েছেন। অপর প্রার্থী সেলিম খান (টেবিল ল্যাম্প) ২৯ ভোট, আমিনুল ইসলাম (পানির বোতল) ২৬৬ ভোট, খন্দকার মফিদুল ইসলাম (ব্রিজ) ১৮৫ ভোট, মিজানুর রহমান (পাঞ্জাবি) ২২১ ভোট ও আব্দুল গফুর মোড়ল (ব্লাক বোর্ড) ১৯ ভোট পেয়েছেন। ৯ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর এস এম এবাদত সিদ্দিক বিপুল (পানির বোতল) ৬৩৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী আবুল কালাম আজাদ (উটপাখি) ৫৪৭ ভোট পেয়েছেন। অপর প্রার্থী আব্দুল বারিক বিশ্বাস (ব্রিজ) ২৩ ভোট পেয়েছেন। সংরক্ষিত কাউন্সিলর ১ নম্বর ওয়ার্ডে খাদিজা খাতুন (জবাফুল) ২ হাজার ৪৪০ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী মেহেরুন্নেছা (আনারস) ২ হাজার ১০৮ পেয়েছেন। অপর দিকে রাশিদা খাতুন (চশমা) ৬১৫, মঞ্জুয়ারা বেগম (অটোরিক্সা) ৫৮১ ভোট পেয়েছেন। সংরক্ষিত ২ নম্বর ওয়ার্ডে আছিয়া খাতুন পেয়েছেন (জবাফুল) ১ হাজার ৬৭৫ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী আছমা খাতুন (আনারস) ১ হাজার ২৯৫ পেয়েছেন। অপর দিকে শাহানা কবির (চশমা) ৩২০ ও রুপা আইচ (টেলিফোন) ৬৯৮ ভোট পেয়েছেন। সংরক্ষিত ৩ নম্বর ওয়ার্ডে আছমা খাতুন (চশমা) ২ হাজার ৩০৪ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকট তম প্রতিদ্বন্ধী মনিরা খানম (জবাফুল) ১ হাজার ৩১ পেয়েছেন। অপর প্রার্থী তহমিনা বেগম (বলপেন) ৭৫০, জাহানারা খানম (টেলিফোন) ২৪৮ ও রিক্তা খাতুন (আনারস) ৪৮২ ভোট পেয়েছেন।
প্রজন্মনিউজ২৪/গাজীআক্তার

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন