শেষ মুহূর্তে গোল হজম করে পয়েন্ট খোয়ালেন মেসিরা

প্রকাশিত: ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ১২:২১:৫৪

শেষ মুহূর্তে গোল হজম করে পয়েন্ট খোয়ালেন মেসিরা

পুরো ম্যাচে মুহুর্মুহু আক্রমণে কাদিজের রক্ষণভাগকে ব্যতিব্যস্ত রাখল বার্সেলোনা। প্রথমার্ধে লিওনেল মেসির সফল পেনাল্টিতে প্রায় শেষ সময় পর্যন্ত লিড ধরে রাখল তারা। কিন্তু ক্লেমোঁ লংলের ভুলের চড়া মাশুল দিতে হলো তাদের। ড্র করে পয়েন্ট খুইয়ে লা লিগার শিরোপা পুনরুদ্ধারের পথে হোঁচট খেল কাতালানরা।

রবিবার রাতে নিজেদের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে হোঁচট খেয়েছে বার্সা। রোনাল্ড কোমানের শিষ্যদের ১-১ গোলে রুখে দিয়েছে পয়েন্ট তালিকার নিচের দিকে থাকা কাদিজ। শেষ বাঁশি বাজার কিছু আগে স্পট-কিক থেকে লক্ষ্যভেদ করে সমতা টানেন অ্যালেক্স ফার্নান্দেজ।

চলতি বছরে লা লিগায় এই প্রথম পয়েন্ট হারাল বার্সেলোনা। লিগে আগের সাতটি ম্যাচের সবকটিতে বিজয়ীর হাসি হেসেছিল তারা। তবে সকল প্রতিযোগিতা মিলিয়ে হিসাব করলে তাদের সময়টা ভালো যাচ্ছে না। শেষ চার ম্যাচের মাত্র একটিতে জিতেছে তারা। গত সপ্তাহে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ঘরের মাটিতে বিধ্বস্ত হয় তারা। ফরাসি লিগ ওয়ানের শিরোপাধারী পিএসজি তাদেরকে উড়িয়ে দেয় ৪-১ গোলে।

ওই ম্যাচের শুরুর একাদশের উপরেই আস্থা রেখেছিলেন কোমান। এদিন বল দখলে চারগুণ এগিয়ে থাকার পাশাপাশি ১৮টি সুযোগ তৈরি করে দলটি। কিন্তু রক্ষণ জমাট রেখে খেলা কাদিজকে হারাতে ব্যর্থ হয়েছে তারা। ফলে লিগের আগের চার ম্যাচে ১৫ গোল হজম করা সফরকারীরা পয়েন্ট প্রাপ্তির উল্লাস নিয়ে মাঠ ছেড়েছে।

১৬তম মিনিটে জর্দি আলবার শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। দুই মিনিট পর মেসির শট প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের পায়ে লেগে নস্যাৎ হয়ে যায়। কিছু মুহূর্ত বাদে ওসমান দেম্বেলের দূরপাল্লার শট চলে যায় পোস্টের অনেক উপর দিয়ে। মূলত কাদিজ খোলসবন্দি হয়ে থাকায় ডি-বক্সের বাইরে থেকে শট নেওয়ার কৌশল বেছে নিতে হয়েছিল বার্সাকে।

মেসি ও আঁতোয়ান গ্রিজমানের আরও কয়েকটি প্রচেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর ৩২তম মিনিটে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। পেদ্রি ফাউলের শিকার হওয়ায় পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। দারুণ দক্ষতায় স্বদেশি গোলরক্ষক জেরেমিয়াস লেদেসমাকে ফাঁকি দেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মেসি। চলতি লিগে এটি তার ১৬তম গোল। সমান সংখ্যক গোল করেছেন অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের লুইস সুয়ারেজও। বাকিরা পিছিয়ে তাদের চেয়ে।

দুই মিনিট পরই সমতায় ফিরতে পারত অতিথিরা। ডানপ্রান্ত থেকে ভেসে আসা ক্রস হেড করলেও পুরোপুরি বিপদমুক্ত করতে পারেননি জেরার্দ পিকে। বল পৌঁছে গিয়েছিল রুবেন সোবরিনোর কাছে। কিন্তু ঠিকঠাক সংযোগ ঘটানোর মতো অবস্থায় ছিলেন না এই স্ট্রাইকার। বল চলে যায় ক্রসবারের উপর দিয়ে।

বিরতির আগে আরও দুবার বল জালে পাঠিয়েছিল বার্সা। ৩৯তম মিনিটে ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং ও ৪৪তম মিনিটে পেদ্রি খুঁজে নিয়েছিলেন জাল। তবে অফসাইড হওয়ায় গোল মেলেনি। দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ৬০তম মিনিটে বড় বাঁচা বেঁচে যায় কাদিজ। মেসি ছয় গজের বক্সের মধ্যে বল বাড়িয়েছিলেন গ্রিজমানকে। কিন্তু এই ফরাসি ফরোয়ার্ড শট নেওয়ার আগে লেদেসমা ঠেকিয়ে দেন বল।

পাঁচ মিনিট পর একক নৈপুণ্যে ডি-বক্সে ঢুকেও আসল কাজটা করতে পারেননি দেম্বেলে। বল চলে যায় দূরের পোস্ট ঘেঁষে। এরপর ছয় মিনিটের ব্যবধানে দুবার হতাশ হতে হয় মেসিকে। ৭৩তম মিনিটে তার ডান পায়ের ভলি লক্ষ্যে থাকেনি। ৭৮তম মিনিটে বাঁ পায়ের দূরপাল্লার শটেরও হয় একই দশা।

ন্যূনতম ব্যবধানে জয়ের দ্বারপ্রান্তে যখন স্বাগতিকরা, তখন লংলে ৮৮তম মিনিটে ডি-বক্সের ভেতরে আচমকা সোবরিনোকে ফাউল করেন। এরপর ঠাণ্ডা মাথায় গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেনকে পরাস্ত করেন ফার্নান্দেজ।

২৩ ম্যাচে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগে আগের তৃতীয় স্থানেই থাকছে বার্সা। সমান ম্যাচে শীর্ষে থাকা অ্যাতলেতিকোর অর্জন ৫৫ পয়েন্ট। লা লিগার বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ আছে দুইয়ে। এক ম্যাচ বেশি খেলে তাদের নামের পাশে রয়েছে পয়েন্ট ৫২। ২২ ম্যাচে ৪৫ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে সেভিয়া।

প্রজন্মনিউজ২৪/সাইফুল

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন





ব্রেকিং নিউজ