করোনার মধ্যেই এসেছে পহেলা ফাল্গুন ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবস

প্রকাশিত: ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ০৩:৪৪:৫২

করোনার মধ্যেই এসেছে পহেলা ফাল্গুন ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবস

এ বছর করোনার মধ্যেই এসে গেছে বসন্ত ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবস । যদিও করোনা মহামারী নিয়ন্ত্রনে আসছে বলে আভাস পাওয়া যাচ্ছে। করোনা নিয়ন্ত্রনে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে টিকা প্রদান কর্মসূচী চলছে। বাংলাদেশেও করোনা টিকার প্রয়োগ শুরু হয়েছে। মহামারী মোকাবিলায় টিকা কর্মসূচি দ্রুত ও ব্যাপকভাবে বাস্তবায়িত হলে মহামারী নিয়ন্ত্রন করা সম্ভব বলে মনে করা হচ্ছে।

করোনা নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যেই এ বছর প্রকৃতিতে বসন্ত এসে গেছে। বাঙালি মধ্যবিত্ত নাগরিকদের মধ্যে দেখা দিয়েছে চাঞ্চল্য। কবি সুভাস মুখোপাধ্যায় লিখেছিলেন ’ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক আজ বসন্ত!’  কবির কথাই যেন আজ সত্য হতে চলেছে। করোনা মহামারীর আবহেও বসন্তবরণের সমারোহ চলছে। যদিও গ্রামবাংলা জুড়ে এখনো শীতের প্রকোপ। এলোমমেলো দখিনা বাতাসের দাপট তেমনভাবে দেখাও যাচ্ছে না। কোকিলের কুহুধ্বনিও শোনা যাচ্ছে না। তারপরও অবশ্য কবি আর বাঙালি মধ্যবিত্তের মনে ধ্বনিত হচ্ছে বসন্তের আগমনী গান।
বসন্ত মানেই নতুন সাজে প্রকৃতির মুখরিত হওয়ার দিন, ফুল ফোটার দিন। শীতের বিবর্নতা কাটিয়ে নতুন পাতায় ঋব্ধ হয়ে উঠবে রুক্ষ প্রকৃতি। ফাগুনের ঝিরঝিরে বাতাস আর কোকিলের মিষ্টি কুহুতানে মাতাল হবে ধরণি। যৌবনে আসবে উদ্দামতা। আনন্দ আর উচ্ছ্বাসমুখরতায় ভরে উঠবে মন-প্রাণ।
’আকাশে বহিছে প্রেম, নয়নে লাগিল নেশা/কারা যে ডাকিল পিছে বসন্ত এসে গেছে’। নেশা-জাগানিয়া এই সময়ে এসেছে ভালোবাসা দিবসও। আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস।
বাংলা বর্ষপঞ্জি সংশোধনের কারণে গত বছর থেকে একই দিনে পালিত হচ্ছে পহেলা ফাল্গুন ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবস।

প্রজন্মনিউজ২৪/মাহফুজ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন