যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহসের

৬৭ বছরের রেকর্ড ভাঙলো ট্রাম্প প্রশাসন

প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারী, ২০২১ ০১:৩৪:৪৭

৬৭ বছরের রেকর্ড ভাঙলো ট্রাম্প প্রশাসন

হোয়াইট হাউস ছাড়ার আগে ঢালাওভাবে ক্ষমা করেছেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রেসিডেন্টের ক্ষমতাবলে সাজাপ্রাপ্ত ১৫ জনকে সম্প্রতি সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেন তিনি।

জানা যায়, তার শাসনামলে ইরাক ও আফগানিস্তানে যুদ্ধাপরাধে সাজাপ্রাপ্ত অন্তত ৭০ জনকে ক্ষমা করা হয়। এমন খবর প্রকাশের পর দেশের ভেতরে-বাইরে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন ট্রাম্প। কার্যত সেই স্রোত ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করতে এবার ৬৭ বছরের মার্কিন রেকর্ড ভাঙলেন তিনি।

দেশটির ইন্ডিয়ানার তেরে হাউতে কারাগারে থাকা ৫২ বছর বয়সী লিসা মন্টেগোমারির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে প্রাণঘাতী ইনজেকশন দিয়ে। স্থানীয় সময় গতকাল মঙ্গলবার রাত দেড়টায় তার মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানা জানায়, মিজৌরির ৮ মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক নারীকে ২০০৪ সালে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ রয়েছে লিসার বিরুদ্ধে এই মামলা করা হয়। এমনকি বলা হয়, ওই নারীর গর্ভপাত হওয়া সন্তানকে অপহরণ করেন মানসিক অসুস্থ এই নারী।

এই দুই অভিযোগে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন মার্কিন একটি নিম্ন আদালত। যা গত বছরের ৮ ডিসেম্বর কার্যকরের কথা ছিল। সেই আদেশ দুই দফা স্থগিত হওয়ায় পর চলতি মাসে তা কার্যকরের নির্দেশ দেন আপিল বিভাগ।

প্রত্যক্ষ্যদর্শীরা জানান, মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আগে এক নারী কারারক্ষী তার শেষ ইচ্ছা জানতে চাইলে কেবল ‘না’ বলে জবাব দেন মাস্ক পরা লিসা। এরপর তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের সময় ওই নারী পাশেই ছিলেন।
 
পরে লিসার আইনজীবী কেলি হেনরি বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত ও মানসিক অসুস্থ লিসা মৃত্যুদণ্ড হওয়ার মতো অপরাধ করেননি। তার পরেও তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হলো। এ সিদ্ধান্তের সঙ্গে জড়িত সরকারের সংশ্লিষ্টদের লজ্জা পাওয়া উচিত।

মার্কিন ফেডারেল সরকারের ইতিহাসে ৬৭ বছর বাদে কোনো নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকেরর এই ঘটনা ঘটলো। এর আগে বনি ব্রাউন হিডি নামে এক নারীর মৃত্যুদণ্ড হয়েছিল ১৯৫৩ সালে।

বলা হচ্ছে, ক্ষমতার মেয়াদের শেষের দিকে এসে গত কয়েক মাসে ১০টি ফেডারেল মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। দেশটির কয়েক দশকে এক বছরে এত সংখ্যক মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়নি।#সূত্র: বিবিসি

প্রজন্মনিউজ২৪/ফাহাদ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ