পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়া ছেলেটি আর নেই

প্রকাশিত: ২৮ নভেম্বর, ২০২০ ১২:৪৭:২২

পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়া ছেলেটি আর নেই

রাজধানীর শ্যামপুরের সালাউদ্দিন ফিলিং স্টেশনে সহকর্মীদের দেয়া পেট্রোলের আগুনে দগ্ধ কলেজশিক্ষার্থী রিয়াদ হোসেন (২০) মৃত্যুবরণ করেছেন।গতকাল ২৭ নভেম্বর, শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢামেক হাসপাতালের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে মৃত্যুবরণ করেন তিনি।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া জানান, গত ২৪ নভেম্বর, মঙ্গলবার আশঙ্কাজনক অবস্থায় রিয়াদকে বার্ন ইউনিটের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি করা হয়।তার শরীরের ৪০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিলো।

ওইদিন সকালে শ্যামপুরের সালাউদ্দিন ফিলিং স্টেশনে অন্য সহকর্মীরা রিয়াদের গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।মজার ছলে একজন আরেক জনকে ক্ষেপাতে গিয়ে এই ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে জানায়।

এ বিষয়ে শ্যামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মফিজুল ইসলাম বলেন, ‘এ ঘটনায় ৩ জনকে আসামি করে থানায় মামলা হয়েছে।৩ জনকেই গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।’

এরা হলেন মাহমুদ হাসান ইমন (২২), মো. ফরহাদ আহামেদ পাভেল (২৮) এবং শহিদুল ইসলাম রনি (১৮)।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে পুলিশ সূত্র জানায়, ওই সকালে ইমন ঘুমিয়ে থাকায় পাভেল ও রনি মিলে রিয়াদকে তার ঘুম ভাঙাতে বলে।রিয়াদের ডাকে ইমন ঘুম থেকে উঠবে না বলে জানায়।তারা আবার রিয়াদকে দিয়ে জোর করে এক মগ (২৫০ গ্রাম) অকটেন ইমনের শরীরের ঢেলে দেয়।

পরে ইমন ঘুম থেকে উঠে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে পাভেল আর রনি রিয়াদের কথা বলে।ইমন রেগে গিয়ে রিয়াদের গায়ে পেট্রোল ঢেলে দিয়াশলাই দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।তারা তিনজনই আবার রিয়াদের গায়ের আগুন নিভিয়ে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

রিয়াদের বাবা ফরিদ হোসেন জানান, রিয়াদ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতাভুক্ত সিদ্ধেশ্বরী কলেজে অনার্সের শিক্ষার্থী।পড়াশোনার পাশাপাশি সে খণ্ডকালীন সালাউদ্দিন ফিলিং স্টেশনে কাজ করতো।

প্রজন্মনিউজ২৪/হারুন

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ