সেই কাদিরকে ১৪০০ বছরের কারাদণ্ড দিলো তুর্কি আদালত

প্রকাশিত: ০৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১২:২৭:২৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:


উজবেকিস্তানের নাগরিক আবদুল কাদির মাশারিপভকে ১ হাজার ৪০০ বছর কারাদণ্ড দিয়েছে তুরস্কের আদালত। ইস্তাম্বুলের একটি নাইট ক্লাবে বন্দুক হামলায় ৩৯ জন নিহতের ঘটনায় তাকে এ দণ্ড দেয়া হয়। খবর বিবিসির।

২০১৭ সালে নববর্ষের রাতে ইস্তাম্বুলের রেইনা নাইট ক্লাবে এ বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটেছিল। সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) এই হামলার দায় স্বীকার করেছিল। তিন বছর বিচার কার্যক্রম চলার পর গত সোমবার এর রায় ঘোষণা করে ইস্তাম্বুলের আদালত। এরমধ্যে একজন পুলিশ কর্মকর্তাও ছিলেন।

তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদুলু জানিয়েছে, মাশারিপভকে স্বেচ্ছায় হত্যা ও সংবিধান লঙ্ঘনের অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এছাড়া ৭৯ জনকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে তাকে আরও এক হাজার ৩৬৮ বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়। দণ্ড চলাকালে সে কোনো প্যারোল সুবিধা পাবে না। হামলাকারী যে অস্ত্র ব্যবহার করেছিল তার কোনো লাইসেন্স ছিলো না। রায়ে সেটিরও দণ্ড দেয়া হয়।

হামলায় সহযোগিতার অভিযোগে ইলিয়াস মাসারিপভ নামে আরেক ব্যক্তিকে এক হাজার ৪০০ বছরের বেশি সময় কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সন্ত্রাসী সংগঠনটির সদস্য হওয়ায় আরও ৪৮ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। মামলায় ১১ জনের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদেরকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

২০১৭ সালে রেইনা নাইট ক্লাবে একটি অটোমেটিক রাইফেল দিয়ে হামলা চালায় কাদির। এর আগে হামলাকারী একটি ট্যাক্সি দিয়ে সেখানে পৌঁছে। ১টা ১৫ মিনিটে নাইটক্লাবটিতে যখন সবাই নতুন বছরকে স্বাগত জানাচ্ছিল তখন এই হামলাটি সংঘটিত হয়েছিল। সেই বছরই ১৭ জানুয়ারিতে সন্দেহভাজন বন্দুকধারী আবদুল কাদির মাশারিপভকে আটক করা হয়।

প্রজন্মনিউজ/এম.এইচ.টি

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ