নোবিপ্রবি দিবস নিয়ে বির্তকের অবসান হবে গণস্বাক্ষরের মতামত অনুসারে

প্রকাশিত: ১৫ জুলাই, ২০২০ ০১:১৪:২২

ফাহাদ  হোসেন : বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুযায়ী আজ ১৫ জুলাই নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় দিবস। তবে এ তারিখে বিশ্ববিদ্যালয়  দিবস পালন নিয়ে বিতর্ক রয়েছে।শিক্ষার্থীরা বেশ কয়েকদিন ধরে গণস্বাক্ষর কার্যক্রম চালিয়েছে। গনস্বাক্ষরে দেয়া শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক মতকে প্রাধান্য দিয়ে নোবিপ্রবি দিবস সম্পর্কিত বিতর্কের অবসান হবে বলে জানিয়েছে উপাচার্য ড. মো. দিদার- উল-আলম।
করোনা ভাইরাস সংকটের কারণে এবারের বিশ্ববিদ্যালয় দিবস প্রতিবছরের ন্যায় আনুষ্ঠানিক ভাবে  পালন করা হবে না জানিয়ে উপাচার্য বলেন, আগামীকাল সীমিত আকারে কেক কেটে বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালন করা হবে। যারা সম্ভব হয় স্বাস্থ্য বিধি মেনে উক্ত কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবে।

এদিকে শিক্ষার্থীদের দীর্ঘদিনের  দাবি হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় দিবসকে ২২ জুন বহাল রাখা। বিশ্ববিদ্যালয় দিবস বিতর্ক নিয়ে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা গণস্বাক্ষরে যে মতামত দিচ্ছে সে অনুযায়ী বিষয়টি আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম যেহেতু ২২ জুন শুরু হয়েছে সেই হিসেবে ২২ জুনকেই বিশ্ববিদ্যালয় দিবস হিসেবে পুনর্বহাল করা হবে।
দিবসটি উপলক্ষে আজ  ১৫ জুলাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে কেক কাটা ও শহীদ মিনারে ফুল দেওয়াসহ আরো কিছু কর্মসূচি সীমিত আকারে পালন করা হবে।
এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থী কর্তৃক আয়োজিত গণস্বাক্ষর কার্যক্রমে এখন পর্যন্ত সহস্রাধিক শিক্ষার্থী ২২ জুন কে বিশ্ববিদ্যালয় দিবস হিসেবে পুনর্বহাল করার পক্ষে স্বাক্ষর দিয়েছে বলে জানা গেছে।একাডেমিক কার্যক্রমের প্রথম দিনের আবেগকে সম্মান জানিয়ে ২২ জুনকে পুনরায় বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালন করার জোর দাবি সাধারণ শিক্ষার্থীদের।

উল্লেখ্য, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার ২০০৮ সালের নিবার্চনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসার পরেও নোবিপ্রবির ২য় এবং ৩য় ভিসির মেয়াদকালেও ২২ জুনকে বিশ্ববিদ্যালয় দিবস হিসেবে পালন করা হয় বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রতি বছরের ২২ জুন এই বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালন করে আসছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা।
কিন্তু গত ২০১৬ সাল থেকে ১৫ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালন করা শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সাধারণত যেখানে সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম শুরুর দিনকে বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালন করা হয়, সেখান থেকে ভিন্ন পথে হাঁটতে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। প্রতি বছর বিশ্ববিদ্যালয় দিবস আসলে এ নিয়ে শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মধ্যে একটি মিশ্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়।
প্রজন্মনিউজ২৪/জহুরুল হক

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ