৪০০০ কোটি ক্ষতির মুখে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড

প্রকাশিত: ১৩ মে, ২০২০ ০৯:৩৭:৫০

গোটা বিশ্বে অতিমারী থাবা না-বসালে এতদিনে আইপিএল শেষ হয়ে যেত। বাইশ গজের জনপ্রিয়তম ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক ক্রিকেট লিগের ত্রয়োদশ সংস্করণ শুরু হওয়ার কথা ছিল ২৯ মার্চ থেকে।

করোনার জন্য যাবতীয় পরিকল্পনা তছনছ হয়ে গেছে। চলতি বছর আদৌ আইপিএল হবে কি না, তা নিয়ে রয়েছে ঘোর সংশয়। ক্রিকেট বিনোদনের এই টুর্নামেন্টকে কার্যত বাতিলের খাতাতেই ফেলে রেখেছে ক্রিকেট মহলের একাংশ। 

যদি এই ইভেন্ট একান্তই না হয়, তাহলে বিসিসিআইয়ের (ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড) বিরাট অঙ্কের আর্থিক ক্ষতি হবে।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমল ক্রিকবাজকে এক সাক্ষাৎকারে সম্ভাব্য ক্ষতির ব্যাপারে জানিয়েছেন। তিনি বলছেন, “আমরা প্রতিটি দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ হাতছাড়া করলেই ক্ষতির মুখে পড়ব। আমরা যদি আইপিএল আয়োজন করতে না-পারি তাহলে বিরাট ধাক্কা খাব। টুর্নামেন্ট নাহলে আমাদের ৪০০০ কোটি টাকার ক্ষতি হবে। কিন্তু বোর্ডের কাছে সবার আগে ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা। তারপর বাকি সব। যদি আমরা আইপিএল আয়োজনের সুযোগ পাই, তাহলে অবশ্যই সেটা অনুষ্ঠিত হবে।”

ধুমাল বলছেন ক্রিকেট না ফিরলে বিশ্বের সব বোর্ডের বিরাট ক্ষতি হয়ে যাবে। শুধু বিসিসিআইয়ের একার নয়। তার সংযোজন, “সকল বোর্ডকে একসঙ্গে বসে ক্রিকেট পুনরুজ্জীবিত করার কৌশল বার করতে হবে। শুধু বোর্ড নয়, ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত সকল অংশীদারেরই বিরাট ক্ষতি হবে। খেলা একবার চালু হলেই আমরা আলোচনায় বসব।”

তবে এরই মধ্যে আইপিএল আয়োজনের ইচ্ছাপ্রকাশ করল শ্রীলঙ্কা ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড মরুদেশেও আইপিএল আয়োজনের প্রস্তাবকে বিশেষ আমল দিল না। 

ধুমল বলছেন, “আইপিএল আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছে ইউএই। কিন্তু এই মুহূর্তে আন্তর্জাতিক সফর বন্ধ। ফলে এই নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রশ্নই উঠছে না। প্লেয়ারদের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা সবার আগে। এই মুহূর্তে গোটা বিশ্বে ভ্রমণ স্থগিত। ফলে কিছু বলা সম্ভবই নয় এখন।

প্রজন্ম নিউজ/ নুর

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন