গেন্ডারিয়ার এনু-রুপন ৪ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারী, ২০২০ ০৫:৪১:১৮

ক্যাসিনোকাণ্ডে দীর্ঘদিন পলাতক থাকা গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা এনামুল হক এনু ও তার ভাই রুপন ভূঁইয়ার মানি লন্ডারিং আইনের মামলায় চার দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরী পৃথক দুই মামলায় এ রিমান্ডের আদেশ দেন। ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের শেয়ার হোল্ডার এনু গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এবং তার ভাই রুপন ভূঁইয়া যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

এর আগে গত সোমবার সকালে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে আসামিদের গ্রেপ্তার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে গত বছরের ২৪ সেপ্টেম্বর এনামুল হক এনু ও রুপনের বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। অভিযানে এনুর বাসা থেকে নগদ ৮৮ লাখ ৩৫ হাজার ৮০০ টাকা এবং এক কোটি ২০ লাখ টাকা মূল্যমানের দুই কেজি ৯০৮ দশমিক ৯৫ গ্রাম ওজনের ১৯ ধরনের স্বর্ণালঙ্কার উদ্ধার হয়।

অন্যদিকে রুপনের বাসা থেকে নগদ ১৭ লাখ ১৬ হাজার ৩০০ টাকা এবং দুই কেটি ৫০ লাখ টাকা মূল্যমানের স্বর্ণালংকার উদ্ধার হয়। পরে ওই ঘটনার পর এনু ও রুপনের বিরুদ্ধে সূত্রাপুর, ওয়ারী এবং গেন্ডারিয়া থানায় মানিলন্ডারিং, অবৈধ সম্পদ অর্জনসহ বিভিন্ন অভিযোগে সাতটি মামলা দায়ের হয়।

মঙ্গলবার আসামি এনু এবং সনি মোস্তফাকে আদালতে নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে গেন্ডারিয়া থানার মানিলন্ডারিং আইনে করা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক মেহেদী মাকসুদ ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন। অন্যদিকে একই কর্মকর্তা সূত্রাপুর থানার মানিলন্ডারিং আইনের মামলায় আসামি রুপনের ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট শাম্মী আক্তার ও অ্যাডভোকেট ওসমান গণি রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে এনু ও রুপনের চার দিন করে এবং সনি মোস্তফার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

প্রজন্মনিউজ২৪/রেজাউল

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ