হুমকি  দেওয়া সেই চিঠি  ফেরত দিলেন এরদোগান

প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ১২:০৮:২৩

উত্তর সিরিয়ায় কুর্দিশ ওয়াইপিজি যোদ্ধাদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানের সময় তুরস্ককে হুমকি দেয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সেই চিঠি ফেরত দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান।

বুধবার হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন কথাই জানালেন তুর্কিশ প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, চিঠিটি ফের মি. প্রেসিডেন্টের কাছে দিয়ে দেয়া হয়েছে। আমরা যে চিঠি পেয়েছিলাম সেটি আবার ফিরিয়ে দিয়েছি।

চিঠিতে এরদোগানকে ‘ইতিহাসের নিষ্ঠুর’ ব্যক্তি হিসেবে আখ্যায়িত হওয়ার ঝুঁকি সম্পর্কে সতর্ক করে দিয়েছিলেন ট্রাম্প। এরদোগানকে ট্রাম্প বলেন, অভিযান খুব বেশি হয়ে গেলে নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংস করে দেয়া হবে।

এমন একটি ভাষায় চিঠিটি লেখা হয়েছে, যাতে কূটনৈতিক সৌন্দর্য পর্যন্ত রক্ষা করা হয়নি। বরং এক চাঁচাছোলা হুমকির মাধ্যমেই শুরু করেছেন চিঠি।

গেল ৯ অক্টোবর এ চিঠি লেখা হয়। ট্রাম্প বলেন, চলুন, আমরা একটি ভালো চুক্তির জন্য কাজ করি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, হাজার হাজার লোককে হত্যার জন্য আপনি নিশ্চয়ই দায়ী হতে চাইবেন না। আমিও তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংসের জন্য দায়ী হতে চাই না।

‘যদি আপনি এ অভিযান সঠিক ও মানবিক উপায়ে করেন, তবে ইতিহাস আপনাকে ভালো চোখে দেখবে,’ বললেন ট্রাম্প। ‘কিন্তু বিষয়টি যদি ভালোভাবে না হয়, তবে চিরদিনই একজন নিষ্ঠুর ব্যক্তি হিসেবে আপনাকে দেখা হবে।’

তুরস্কে কুর্দিশ পিকেকে বিদ্রোহীদের সঙ্গে যোগসাজশ থাকায় তুরস্কে সন্ত্রাসী হিসেবে আখ্যায়িত করা হচ্ছে মাজলুম আবদিকে।

‘আপনি একজন কঠোর মানুষ হবেন না, বোকাও হবেন না,’ চিঠির শেষে এমন কথা বলে তিনি আরও যুক্ত করেন, ‘পরে আপনাকে কল দেব।’

প্রজন্মনিউজ২৪/রেজাউল

 

 

         

         

         

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ