প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে নিজেই ভিক্টিম

প্রকাশিত: ১৩ নভেম্বর, ২০১৯ ১২:০৩:৩৫

গাইবান্ধা, প্রতিনিধি: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে নিজেই ভিক্টিম সেজে হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ। অত:পর মামলা দায়ের করে হয়রাণির চেষ্টা। উপজেলার ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়নের উত্তর রাজীবপুর গ্রামের প্রত্যক্ষদর্শী মোহর আলী (৯৫), আঃ লতিফ (৭৫), আঃ গণি (৪৫), ফেরদৌস (৫৫), আনোয়ারা বেগম (৬৫), মফিজুল হক (৪৫), আঃ শেখ ও মোহর আলীর স্ত্রীসহ স্থানীয়রা জানান, গত ২ নভেম্বর সকালে বাবলু মিয়া ও তার পুত্র কামরুলসহ আরো দুই তিন জন মিলে প্রতিপক্ষ আব্দুর রশিদকে কিল, ঘুষি ও ধাক্কা মেরে পানিতে ফেলে দেয়।

ঘটনার সময় কারো হাতে লাঠি, ছোরা বা অন্য কোন অস্ত্র ছিল না। এখানে কারো কোন প্রকার রক্তপাতের ঘটনা ঘটেনি। ওরা নিজেরা-নিজেরাই। শুধু ধাক্কা-ধাক্কি ছাড়া এর বেশি কিছু হয় নাই। এদিকে আব্দুর রশিদ গংকে ঘায়েল করতে বাবলু মিয়ার পুত্র কামরুল ইসলাম পাঁচজনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা করে। মামলার কথিত ভিক্টিম বাবলু মিয়া (২৫) গাইবান্ধা সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার ঘটনায় তাদের (স্থানীয়দের) মাঝে নানান প্রশ্ন।

এব্যাপারে কয়েক দফা মোবাইল ফোনে কথা হলে বাবলু মিয়া আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন, ‘আপনাকে বলে কি লাভ হবে, ওরা (আসামী) আব্দুর রশিদ আমার ব্যবসায় হাত দিতে চেষ্টা করেছে, তাই ওদেরকে এবার দেখে নিব। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা- থানার এসআই শামছুল হক জানান, শুনেছি আসামীরা জামিনে আছেন। কোন কাগজ পাইনি’। থানার নিরস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক (ওসি- তদন্ত) তাজুল ইসলাম জানান, মামলায় তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উক্ত দিনক্ষণে বর্ণিত ঘটনাস্থলের পাশে জনৈক মান্না মিয়ার বাড়ির পূর্ব পার্শ্বে ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবসা নষ্ট করে আসামী আব্দুর রশিদ গং নিজেরাই এই ব্যবসা করার জন্য গ্রাহকদেরকে বোঝানোর চেষ্টা করে। এ নিয়ে আব্দুর রশিদসহ তার অন্যান্য সহযোগী বাদী কামরুল ইসলামের পিতাঃ মোঃ বাবলু মিয়াকে মারপিট করে আসামী আব্দুর রশিদের হাতে থাকা ধারালো ছোরা দ্বারা বাবলু মিয়ার মাথার উপরিভাগে সজোরে চোট দিয়ে গুরুত্বর জখম করলে বাবলু মিয়া মাটিতে পড়ে যায়।

এরপর অপর আসামী আঃ আজিজ বুকের উপর বসে দুই হাত দ্বারা বাবলু মিয়াকে হত্যার উদ্দেশ্যে গলা চেপে ধরে। এ সময় বাবলু মিয়াসহ অন্যান্য সাক্ষীরা এসে বাবলু মিয়াকে রক্ষা করে। মর্মে বাবলু মিয়ার পুত্র কামরুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেছেন বলে জানা গেছে।

প্রজন্মনিউজ২৪/ মামুন

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ