গাইবান্ধায় টাকার জোরে মাদক ব্যবসায়ীর জামিন

প্রকাশিত: ০৩ নভেম্বর, ২০১৯ ০৩:১৬:১৫

গাইবান্ধা  জেলা প্রতিনিধি : কথায় আছে জোর যার মুল্লুক তার,এমন একটি ঘটনাই ঘটেছে গাইবান্ধধার পলাশবাড়ীতে। গতকাল ২ নভেম্বর (শনিবার) গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায়। সদরের চৌমাথা মোড় থেকে একাধিক মাদক মামলার আসামী, মাদক ব্যাবসায়ী খট্টু লিটন ও উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রান বিষয়ক সম্পাদক নিরোদ বরন চৌধুরী ঠাকুরের ছেলে সাগর চৌধুরীকে আটক করে থানা পুলিশ।

সাগর চৌধুরী গ্রেফতার পর  থানায় কতিপয় নেতাকর্মীদের তদবীর হয়। একের পর এক ফোন আসতে শুরু করে উপর মহলের বিভিন্ন নেতা কর্মির থেকে। স্থানীয় সাংবাদিকরা বিষয়টি জানতে পারলে একটা বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয় পুলিশকে।অভিযুক্ত সাগর চৌধুরীকে ছাড়িয়ে নিতে খোজা হয় আইনের ফাঁকফোকর। এরপর এক পর্যায়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় ভ্রাম্যমান আদলতের মাধ্যমে তাকে জামিন করানো  হবে।

সেই মোতাবেক থানার তদবির শেষে শুরু হয় ইউএনও, এসিল্যান্ড সাহেবের কাছে তদবির। প্রথম শারির কয়েকজন নেতা এই তদবিরে অংশ গ্রহণ করেন। পরিশেষে রাত প্রায় ৯ টার দিকে উপজেলা সহকারী কমিশনার ভুমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর আদালতে একাধিক মাদক মামলার আসামী খট্টু লিটন ও সাগর চৌধুরীকে হাজির করা হয়।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মাদকের প্রতি জিরো টরালেন্স আইন করেছেন তা সত্তেও উপর মহলের কিছু নেতা কর্মির আদেশে প্রভাবিত হয়ে আদালত অভিযুক্তদের   ১০ হাজার অর্থদন্ড দিয়ে  জামিন দিয়ে দেয়। রায়ের তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করে সাধারন মানুষ মন্তব্য করেছেন টাকা আর ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে বিচার কার্য্য প্রভাবিত করা হয়েছে।

এ ভাবে চলতে থাকলে বিচার ব্যাবস্থার উপর মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস কমে যাবে। তারা এই রায় আইন সিদ্ধ কিনা তা খতিয়ে দেখার জন্য প্রধান বিচারপতি ও আইনমন্ত্রনালয়ের মাননীয় মন্ত্রী সহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সচেতন পলাশবাড়ীবাসী।

প্রজন্মনিউজ২৪/ আজাদ / মামুন

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন





ব্রেকিং নিউজ