পেঁয়াজ মুক্ত খাদ্যতালিকা করতে আ.লীগ নেতার প্রচারণা

প্রকাশিত: ২১ অক্টোবর, ২০১৯ ১০:৩৭:২২

সরবরাহে সংকট ও মূল্যবৃদ্ধির কারণে খাদ্যতালিকা থেকে পেঁয়াজ বাদ দিতে প্রচারণায় নেমেছেন ‘জনদুর্ভোগ লাঘবে জনতার ঐক্য চাই’ শীর্ষক নাগরিক উদ্যোগের প্রধান উপদেষ্টা ও চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি খোরশেদ আলম।

‘পেঁয়াজ ন খাইয়্যুম, পেঁয়াজ ন কিইন্যুম’ স্লোগানে রোববার চট্টগ্রামের বড় পাইকারি ব্যবসাকেন্দ্র খাতুনগঞ্জে গণপ্রচারণার উদ্বোধন করেছেন খোরশেদ আলম। নগরের বিভিন্ন বাজারে তিনি কর্মসূচি অব্যাহত রাখবেন বলেও জানা গেছে।

খাতুনগঞ্জের হামিদউল্লাহ বাজার রোববার বেলা ১১টা থেকে পেঁয়াজ বর্জনবিষয়ক প্রচারপত্র ব্যবসায়ী ও পথচারীদের মধ্যে বিতরণ করেন খোরশেদ আলম। এ সময় তাঁকে ঘিরে শত শত মানুষের জটলা তৈরি হয়। অনেককে আগ্রহ নিয়ে এই কর্মসূচিতে সায় দিতেও দেখা গেছে।

পেঁয়াজ বর্জন প্রচারণার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে খোরশেদ আলম বলেন, ভারত থেকে সরবরাহ বন্ধ হওয়ায় হঠাৎ পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটেরা যখন বাজারে অভিযান চালান, তখন পেঁয়াজের দামটা সহনীয় পর্যায়ে আসে। বাজার থেকে ম্যাজিস্ট্রেটেরা চলে গেলেই সিন্ডিকেট বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করে।

খোরশেদ আলম বলেন, বর্তমানে বাজারে পেঁয়াজের সংকট তেমন নেই বলে বিভিন্ন মাধ্যমে জানা গেছে। তারপরও একশ্রেণির লোভী ব্যবসায়ী অহেতুক কারসাজির মাধ্যমে কৃত্রিম সংকট তৈরি করেছেন। এরপর দাম বাড়িয়ে ভোক্তাদের কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন, যা অনৈতিক।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে খোরশেদ আলম বলেন, আমদানিকারক, বিক্রেতা, সরবরাহকারী—সবাই এ দেশের মানুষ। কিন্তু তাঁরা সবাই জনগণের নিত্যদিনের ভোগ্যপণ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলেন। শুধু পেঁয়াজই নয়, বিভিন্ন মৌসুমে ব্যবসায়ীরা সরবরাহের কম—এমন অজুহাতে একেক সময় একেক পণ্যের দাম বাড়িয়ে জনগণকে কষ্ট দেন। আর সরকারকে বেকায়দায় ফেলার চক্রান্তে লিপ্ত থাকেন।

খোরশেদ আলম উপস্থিত জনতার উদ্দেশে বলেন, প্রধানমন্ত্রী সম্প্রতি ভারত সফরের সময় জানিয়েছেন, খাদ্যতালিকা থেকে পেঁয়াজ বাদ দিতে তিনি বাবুর্চিকে নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে পেঁয়াজ বর্জনের কর্মসূচি দেওয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে চট্টগ্রাম নগরের প্রতিটি বাজারে এই কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

খোরশেদ আলম পথচারীদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনারা এক সপ্তাহের জন্য পেঁয়াজ কেনা বাদ রাখুন। তারপর দেখবেন স্বাভাবিকভাবেই পেঁয়াজের দাম জনগণের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে চলে আসবে।’

তিন দিনের মধ্যে পেঁয়াজ কারসাজির সঙ্গে জড়িত ব্যবসায়ীদের নাম গণমাধ্যম ও উন্মুক্ত স্থানে ঘোষণা করা হবে বলে খোরশেদ আলম হুঁশিয়ার দেন। ওই অসাধু ব্যবসায়ীদের সামাজিকভাবে বয়কট করারও আহ্বান জানান তিনি।

খোরশেদ আলম পেঁয়াজের সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ক্যাসিনো ব্যবসায়ীদের মতো কঠোর আইনি ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রজন্মনিউজ২৪/নাবিল

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ