মিস ওয়ার্ল্ডে তোরসার পরিবর্তে মীম!

প্রকাশিত: ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ০১:১৯:৩২

প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও মিস ওয়ার্ল্ডে বাংলাদেশ প্রতিযোগীয় সৃষ্টি হয়েছে জটিলতা। এবারের প্রতিযোগিতা যুক্তরাজ্যে হওয়ায় শঙ্কা তৈরি হয়েছে ভিসা জটিলতা নিয়ে। তাই আগে থেকেই একজনকে স্ট্যান্ডবাই হিসেবে রেখে দিয়েছে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের আয়োজক প্রতিষ্ঠান অমিকম এন্টারটেইনমেন্ট।

২০১৭ সালে যখন বাংলাদেশ থেকে কোনো তরুণীর এই বিশ্বমঞ্চে অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছিল তখন শেষ পর্যায়ে গিয়ে বিবাহবিতর্কে জড়িয়ে বাদ পড়েন জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল। চীনে আয়োজিত ওই প্রতিযোগিতায় শেষ মুহূর্তে অংশ নেন জেসিয়া ইসলাম। এবার মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতার মূল মঞ্চে অংশগ্রহণের জন্য বাংলাদেশ থেকে নির্বাচিত হয়েছেন চট্টগ্রামের মেয়ে রাফাহ নানজীবা তোরসা।

তবে শেষ পর্যন্ত তিনি মূল প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবেন কিনা সেই শঙ্কা থাকায় মিস বিউটি উইথ পারপাস নওশীন আফরিন মীমকে বিকল্প হিসেবে রেখেছে অমিকম। সোমবার (১৪ অক্টোবর) রাজধানীর গুলশানে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন তথ্য জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, যুক্তরাজ্যে ভিসার ক্ষেত্রে কিছুটা জটিলতা আছে। অনেক সময়ই বাংলাদেশিদের ভিসার আবেদন বাতিল হয়।

তাই তোরসা ভিসা না পেলে বিকল্প হিসেবে সেখানে যাবেন প্রতিযোগিতার মিস বিউটি উইথ পারপাস নওশীন আফরিন মীম। এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান বলেন, লন্ডনে ভিসার একটা বিষয় আছে। তোরসাই মূল প্রতিযোগিতায় অংশ নেবেন। তবে তিনি যদি ভিসা না পান কিংবা অন্য কোনো জটিলতার সৃষ্টি হয় তবে বিকল্প হিসেবে তোরসার পরিবর্তে অন্যজনকে পাঠানো হবে।

তিনি আরও বলেন, ভিসা জটিলতার জন্য আমরা একজনকে স্ট্যান্ডবাই রেখেছি। যদি তোরসা ভিসা না পায় তবে তার মিস বিউটি উইথ পারপাস মীমকে পাঠানো হবে। এজন্য আমরা দুইজনের ভিসার আবেদন করেছি। প্রসঙ্গত, আগামী ১৪ ডিসেম্বর লন্ডনে অনুষ্ঠিত হবে মিস ওয়ার্ল্ড ২০১৯। সেই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন তোরসা। এর আগে ২০১৭ সালে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের মুকুট পরেন জেসিয়া ইসলাম ও ২০১৮ সালে বিজয়ী হন জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী।

প্রজন্মনিউজ২৪/তারেক আজিজ  

              

              

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন





ব্রেকিং নিউজ