চীন-পাকিস্তানকে টেক্কা দিতে ৪০ হাজার কোটির বাজেট চেয়েছে ভারতীয় বিমানবাহিনী

প্রকাশিত: ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১১:৫৭:০৯

কাশ্মীর নিয়ে বিতর্ক এবং পাকিস্তান ও চীনের সঙ্গে চলমান উত্তেজনার মধ্যে নিজেদের আধুনিকায় করতে ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েছে ভারতীয় বিমানবাহিনী। চীন ও পাকিস্তানকে টেক্কা দিতে আকাশ শক্তি বাড়াতে সরকারের কাছে ৪০ হাজার কোটি রুপির বিশাল বাজেট চেয়েছে ইন্ডিয়ান এয়ার ফোর্স।

জানা গেছে, ভারতীয় বিমানবাহিনী আধুনিকীকরণে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে টাকার যোগান। সেই সমস্যার মোকাবিলায়, ইন্ডিয়ান এয়ার ফোর্স কেন্দ্র সরকারের কাছে বাড়তি অর্থ চেয়েছে নতুন যন্ত্রপাতি কেনা এবং বরাত দেওয়া আধুনিক অস্ত্র ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসের টাকা মেটানোর জন্যে। দুই উচ্চ পদস্থ ভারতীয় সেনা কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় মিডিয়া।

চলতি বছরে কেন্দ্রীয় বাজেটে বিমানবাহিনীর জন্য বরাদ্দ ৩৯,৩০০ কোটি রুপির প্রয়োজনীয় সব চাহিদা মেটানো সম্ভব হচ্ছে না বলেই জানানো হয়েছে। বিমানবাহিনীকে আরও আধুনিক ও অপ্রতিরোধ্য করে তুলতে প্রয়োজন বাড়তি ৪০ হাজার কোটি রুপি।

বিমানবাহিনীর ঐ দুই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘আমাদের যতটা অর্থ প্রয়োজন এবং বাস্তবে যা বরাদ্দ করা হয় তার মধ্যে আকাশ পাতাল তফাত রয়েছে। ঠিক সেই কারণেই আমরা সরকারের কাছে বাড়তি অর্থের আবেদন করেছি। আমাদের জানানো হয়েছে ডিসেম্বর মাসে বিমানবাহিনীর এই আবেদন খতিয়ে দেখা হবে।’

ভারতীয় বিমানবাহিনীকে আরও শক্তিশালী ও আধুনিক করে তুলতে এই মুহূর্তে প্রয়োজন ১১৪টি নতুন মিডিয়াম ওজনের ফাইটার জেট, ৮৩টি কমব্যাট এয়ারক্রাফ্ট, ৩৩টি মিগ ২৯ ও সুখোই ৩০, ৬টি এরিয়াল রিফুয়েলিং প্লেন, ৫৬ মিডিয়াম ট্রান্সপোর্ট এয়ারক্রাফ্ট এবং ৭০টি বেসিক ট্রেনার এয়ারক্রাফ্ট। এই মুহূর্তে ভারতীয় বিমানবাহিনীর ৪৮ হাজার কোটি টাকার কমিটেড লায়াবিলিটি আছে বলেই জানানো হয়েছে।

সামরিক বিষয়ক বিশেষজ্ঞদের মত অনুযায়ী আধুনিক অস্ত্র ও এয়ারক্রাফ্ট কেনার জন্যে বিমানবাহিনীর বাড়তি অর্থের আবেদন একেবারেই অযৌক্তিক নয়। যেভাবে পাকিস্তান ও চীনের দিক থেকে ভারতের উপর চাপ বাড়ছে, তাতে সব পরিস্থিতির জন্যে দেশকে তৈরি থাকতে হলে বিমানবাহিনীর এই প্রয়োজন মেটানো আবশ্যিক।

সূত্র : এই সময়।

প্রজন্মনিউজ২৪/শেখ ফরিদ

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন