বেড়েছে পেঁয়াজের ঝাঁজ

প্রকাশিত: ০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১০:৫১:৪৫ || পরিবর্তিত: ০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১০:৫১:৪৫

দেশের আড়তগুলোতে মজুদ কমে যাওয়ায় ও ভারতে বন্যার প্রভাবে বেড়েছে পেঁয়াজের ঝাঁজ। মাত্র ১৫ দিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম পাইকারিতে ১০ টাকা আর খুচরায় বেড়েছে ২৫ টাকা।

পাইকারিতে প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ মানভেদে ৩৮ থেকে ৪৫ টাকা, আমদানিকৃত পেঁয়াজ ৩৮ থেকে ৪২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। যা দেশিতে খুচরায় বিক্রি হচ্ছে মানভেদে ৫৫ থেকে ৭০ টাকা, আর আমদানিকৃত পেঁয়াজ ৫০ থেকে ৬০ টাকা।

এদিকে বাজারে এমন অস্বাভাবিক দাম বাড়ায় বিপাকে পড়েছেন ক্রেতা-বিক্রেতা উভয়েই। ক্রেতারা বলেন, সরকারের মনিটরিং ব্যবস্থা ভালো থাকলে কয়েকদিন পরপর পেঁয়াজের দামে উত্থান-পতন হতো না। নিন্মআয়ের মানুষের যত জ্বালা। আর ব্যবসায়ীরা বলেন, আমরা ভাই বেশি দামে কিনি, বেশি দামে বিক্রি করি।

পাইকারি বাজারের সঙ্গে আমাদের দামের ব্যবধান একটু বেশিই থাকে। কারণ পেঁয়াজ কেনার পর আমাদের ঘাটতি যায়। আনা নেওয়ার খরচসহ বিভিন্ন খরচ রয়েছে, ফলে দাম একটু বেশিই পড়ে।

শনিবার (৩১ আগস্ট) রাজধানীর পেঁয়াজের সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার শ্যামবাজারে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, ব্যবসায়ীরা এক পাল্লা (৫ কেজি) দেশি পেঁয়াজ মানভেদে বিক্রি করছেন ১৯০ থেকে ২২৫ টাকা। সে হিসেবে প্রতি কেজির দাম পড়ে ৩৮ থেকে ৪৫ টাকা। যা ঈদের আগে বিক্রি হয়েছিল ৩০ থেকে ৩৫ টাকা। সে হিসেবে কেজিতে দাম বেড়েছে ১০ টাকা।

আমদানিকৃত প্রতি পাল্লা (৫ কেজি) পেঁয়াজ মানভেদে ১৯০ থেকে ২১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সে হিসেবে প্রতিকেজির দাম ৩৮ থেকে ৪২ টাকা। যা ঈদের আগে বিক্রি হয়েছিল ২৮ থেকে ৩০ টাকা। সে হিসেবে দাম বেড়েছে ১২ টাকা।

প্রজন্মনিউজ/দেলাওয়ার হোসাইন

 

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন





ব্রেকিং নিউজ