অস্ত্রোপচারে পা কেটে ফেলার ঘটনাও ভুলে যাচ্ছেন কৃষ্ণা!

প্রকাশিত: ৩১ অগাস্ট, ২০১৯ ০৬:২৬:২৫

সড়ক দুর্ঘটনায় পা কেটে ফেলা হলেও বিষয়টি বরাবরই ভুলে যচ্ছেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) হিসাব বিভাগের সহকারী ব্যবস্থাপক কৃষ্ণা রায়।

জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানের (পঙ্গু হাসপাতাল) চিকিৎসানাধীন রয়েছেন কৃষ্ণা রায়।

তার শরীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে হাসপাতালের চিকিৎসক অধ্যাপক মো. আবদুর রব সাংবাদিকদের বলেন, অস্ত্রোপচারে কৃষ্ণা রায়ের পা কেটে ফেলা হয়েছে। তবে তিনি তা ভুলে যাচ্ছে ও হাঁটতে চাচ্ছেন।

এর কারণ হিসেবে এই চিকিৎসক জানান, অস্ত্রোপচারে কারও পা কাটার পর মস্তিষ্ক তাকে সিগন্যাল (সংকেত) দেয়, পা আছে। তাই সব রোগীরাই এ ধরনের আচরণ করে থাকেন। তাই কৃষ্ণা রায়ও পা কেটে ফেলার বিষয়টি ভুলে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, শনিবার কৃষ্ণা রায়ের কাটা পায়ের ব্যান্ডেজ খোলা হবে। অস্ত্রোপচার করে কৃত্রিম পা বসানোর উপযোগী করে তোলা হবে।

রোববার তার কাটা পায়ে দ্বিতীয় দফায় অস্ত্রোপচার করা হতে পারে।

কৃষ্ণার স্বামী রাধে শ্যাম বলেন, পা কাটার বিষয়টি কৃষ্ণা মনে রাখতে পারছে না। সকালে ঘুম ভাঙার পর বারান্দায় হাঁটতে চেয়েছিল।পরে তার মনে পড়েছে পা নেই।

গত মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বাংলামোটর মোড়ের ফুটপাতে হাঁটছিলেন তিনি। তখন ট্রাস্ট ট্রান্সপোর্টের বেপরোয়া গতির একটি বাস রাস্তা থেকে ফুটপাতে উঠে তাকে চাপা দেয়। এতে তার বাঁ পা প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। জীবন বাঁচাতে চিকিৎসকরা তার হাঁটু থেকে নিচের অংশ কেটে ফেলেন।

এ ঘটনায় একটি মামলা হলেও বাসটির মালিক, চালক ও চালকের সহকারীকে গত চারদিনেও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

প্রজন্মনিউজ২৪/নাবিল

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ