ব্লক করায় উগান্ডার প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত: ২৯ অগাস্ট, ২০১৯ ১২:৩৭:৪৮

মতামত পছন্দ না হলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্লকের ঘটনা প্রায়ই ঘটে। এ নিয়ে মামলা হওয়া অবাক করার মতো বিষয়ই বটে। তা-ই হয়েছে! সেই মামলার বিবাদী স্বয়ং উগান্ডার প্রেসিডেন্ট।

এই নিয়ে এক প্রতিবেদনে বলা হয়, টুইটারে আফ্রিকার দেশটির প্রেসিডেন্ট ইওয়েরি মুসেভেনিকে ‘একনায়ক’ বলেছিলেন এক ছাত্র। বিষয়টি তার ভালো লাগেনি।

তবে ইওয়েরি এই নিয়ে কথা বাড়াতে চাননি। তাই পোস্টের নিচে পাল্টা মন্তব্যে না করে সমালোচককে টুইটারে ব্লক করেন।

প্রেসিডেন্টকে আক্রমণ করেছিলেন মার্কিনপ্রবাসী উগান্ডার ছাত্র হিলারি ইনসাফ টেইলর সেগুয়ার। ব্লকের ঘটনাও তার নজর এড়ায়নি।

দেশের প্রেসিডেন্ট সোশ্যাল মিডিয়া ব্লক করেছে- বিষয়টি অপমান হিসেবে নিয়েছেন হিলারি। এর বদলা নিতে আদালতের শরণাপন্ন তিনি।

উগান্ডার রাজধানী কামপালার আদালতে দায়ের করা পিটিশনে হিলারি বক্তব্য, টুইটারে এই তুচ্ছ কারণে কাউকে ব্লক করা যায় না। তার আরজি, উগান্ডার প্রেসিডেন্টের এই পদক্ষেপকে আদালত যেন বেআইনি ও পদ্ধতিগতভাবে অনুচিত ঘোষণা করে।

হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ছাত্র হিলারি। ইয়ুথ আইকন হিসেবে তিনি খুবই পরিচিত মুখ।

এর আগে ২০১৭ সালের জুলাইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে টুইটারে ব্লকের অভিযোগ আনা হয়। এ প্রসঙ্গে আদালতের রায় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যায়। বলা হয়, এই ধরনের পদক্ষেপ সংবিধানের প্রথম সংশোধনী লঙ্ঘন করেছে। কারণ, ট্রাম্পের ওই অ্যাকাউন্ট ব্যক্তিগত ছিল না- সরকারি ছিল।

প্রজন্মনিউজ/ দেলাওয়ার হোসাইন

 

 

 

 

 

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ