ইসরায়েলের ড্রোন হামলা যুদ্ধ ঘোষণার শামিল: লেবাননের প্রেসিডেন্ট

প্রকাশিত: ২৭ অগাস্ট, ২০১৯ ১২:২৫:৪৩

বৈরুতে ইসরায়েলের ড্রোন হামলাকে যুদ্ধের ঘোষণা বলে আখ্যা দিয়েছেন লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন। সোমবার দেশটিতে জাতিসংঘের বিশেষ দূত জান কুবিসের সঙ্গে বৈঠকে তিনি বলেন, যা ঘটেছে তা যুদ্ধ ঘোষণা এবং তা আমাদের সার্বভৌমত্ব, স্বাধীনতা ও আঞ্চলিক অখন্ডতা রক্ষার অধিকারের শরণ নেওয়াকে অনুমোদন করেছে। একই দিন দেশটির প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরি বলেছেন, তার সরকার ইসরায়েলের সঙ্গে উত্তেজনা এড়াতে চায়।

রবিবার লেবাননের রাজধানী বৈরুতের দক্ষিণাঞ্চলে দুটি ড্রোন বিস্ফোরিত হয়। এসব ড্রোন ইসরায়েলের বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। এর কয়েক ঘন্টা পর ইরান সমর্থিত লেবাননের সশস্ত্র সংগঠন হিজবুল্লাহর প্রধান হাসান নসরুল্লাহ বলেন, আত্মঘাতী অভিযানে এসেছিল ইসরায়েলি ড্রোন। টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক ভাষণে তিনি বলেন, এই ধরণের আগ্রাসন সহ্য করবে না হিজবুল্লাহ। ইসরায়েলের ড্রোন লেবাননের আকাশসীমায় প্রবেশ করলে সঙ্গে সঙ্গে গুলি করে ভূপাতিত করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ওই নেতা।

সোমবার লেবাননে নিযুক্ত জাতিসংঘের বিশেষ দূত জান কুবিসের সঙ্গে বৈঠক করেন হিজবুল্লাহ গ্রুপের রাজনৈতিক মিত্র প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন। ওই বৈঠকের পর প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের এক টুইট বার্তায় বলা হয়েছে, মিশেল আউন বৈঠকে বলেছেন রবিবারের হামলা জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ১৭০১ নম্বর প্রস্তাবের লঙ্ঘন। ওই প্রস্তাবের মধ্য দিয়ে ২০০৬ সালে হিজবুল্লাহ-ইসরায়েল যুদ্ধের অবসান ঘটেছিল। জাতিসংঘ দূতকে প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা শান্তি চাওয়া মানুষ, যুদ্ধ নয় আর কেউ যুদ্ধের হুমকি দিলে তা আমরা তা মেনে নেব না।

একইদিন জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্য দেশের রাষ্ট্রদূতদের সঙ্গে বৈঠক করেন লেবাননের প্রেসিডেন্ট সাদ হারিরি। লেবাননের স্থিতিশীলতায় তাদের সমর্থন প্রত্যাশা করে তিনি বলেন, ইসরায়েলের সঙ্গে মারাত্মক উত্তেজনা এড়াতে চায় তার সরকার। তিনি বলেন, ‘যে কোনও উত্তেজনা আঞ্চলিক সহিংসতার এমন চক্র তৈরি করতে পারে যার ব্যাপ্তী কেউই ধারণা করতে পারবে না’।

প্রজন্মনিউজ/দেলাওয়ার হোসাইন।

 

 

 

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ