গণপিটুনি থেকে রক্ষায় সরকারের পদক্ষেপ জানতে চেয়েছে হাইকোর্ট

প্রকাশিত: ২৭ অগাস্ট, ২০১৯ ১১:৫৫:২৩

গণপিটুনি থেকে ব্যক্তিকে রক্ষায় সরকারের পদক্ষেপের বিষয়ে জানতে চেয়েছে হাইকোর্ট। পাশাপাশি গণপিটুনির সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে কী ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা-ও জানতে চেয়েছে আদালত।

এ সংক্রান্তে একটি রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেয়।

এ বিষয়ে আগামী ২৮ নভেম্বরের মধ্যে স্বরাষ্ট্র সচিব ও পুলিশের মহাপরিদর্শককে প্রতিবেদন আকারে হাইকোর্টকে জানাতে বলা হয়েছে।

রাজধানীর বাড্ডায় গণপিটুনিতে নিহত মানসিক প্রতিবন্ধী তাসলিমা বেগম রেনুসহ এর শিকার অন্যদের বাঁচাতে ব্যর্থতা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে হাইকোর্ট।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী ইশরাত হাসান। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী জামিউল হক ফয়সাল।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, তথ্য সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, ডিএমপি কমিশনার ও বাড্ডা থানার ওসিকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

গত ২০ জুলাই সকালে উত্তর-পূর্ব বাড্ডার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনুকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ দৃশ্যটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হলে দেশজুড়ে নিন্দার ঝড় ওঠে। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান।

গণপিটুনিতে জড়িতদের বিচার ও শাস্তি নিশ্চিত করতে পৃথক আইন তৈরির পাশাপাশি রুল চাওয়া হয় আবেদনে।

প্রজন্মনিউজ/দেলাওয়ার হোসাইন।

 

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ