বোল্ট ২৫০ সাউদি ৫০০

প্রকাশিত: ২৪ অগাস্ট, ২০১৯ ০৭:২১:০০

২০১২ সালে শ্রীলংকা সফরে কলম্বোর পি সারা ওভালে দ্বিতীয় টেস্ট জিতে সিরিজ বাঁচিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। সেই ম্যাচে নতুন বলে জুটি বেঁধে ১৫ উইকেট নিয়েছিলেন ট্রেন্ট বোল্ট ও টিম সাউদি। এবারও দুই কিউই পেসারের সামনে সিরিজ বাঁচানোর চ্যালেঞ্জ। বৃষ্টি-বাধা পেরিয়ে দলকে তারা কাক্সিক্ষত জয় এনে দিতে পারবেন কিনা তা সময়ই বলে দেবে।

তবে দারুণ দুটি মাইলফলক ছুঁয়ে বৃষ্টিভেজা কলম্বো টেস্ট স্মরণীয় করে রাখার উপলক্ষ পেয়ে গেছেন দু’জনই। প্রথমদিনের মতো শুক্রবার দ্বিতীয়দিনেও বৃষ্টির উৎপাতে এক সেশনে বেশি খেলা সম্ভব হয়নি পি সারা ওভালে। ফলে ম্যাচের প্রথম ইনিংসই এখনও শেষ হয়নি। বৃষ্টির ফাঁকে দু’দিনে যে ৬৬ ওভার খেলা সম্ভব হয়েছে তাতে বোল্ট ও সাউদির দাপটে চালকের আসনে নিউজিল্যান্ড।

দ্বিতীয়দিন শেষে প্রথম ইনিংসে শ্রীলংকার সংগ্রহ ছয় উইকেটে ১৪৪ রান। ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ৩২ ও দিলরুয়ান পেরেরা পাঁচ রানে ব্যাট করছেন। আগেরদিন ৪৯ রানে অপরাজিত থাকা অধিনায়ক দিমুথ করনারত্নে কাল আউট হয়েছেন ৬৫ রানে। দুই উইকেটে ৮৫ রানে দ্বিতীয়দিন শুরু করা শ্রীলংকা কাল এক সেশনেই হারিয়েছে চার উইকেট।

চার উইকেট ভাগাভাগি করে নেয়ার পথে বোল্ট ছুঁয়েছেন টেস্টে ২৫০ উইকেটের মাইলফলক। আর সাউদি পেয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ৫০০তম উইকেট। কাল দিনের পঞ্চম ওভারে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসকে ফিরিয়ে নিউজিল্যান্ডের মাত্র তৃতীয় বোলার হিসেবে টেস্টে ২৫০ উইকেট পূর্ণ করেন বোল্ট। একই ওভারে কুশাল পেরেরাকেও ফিরিয়ে দেন তিনি।

সাদা পোশাকে নিউজিল্যান্ডের পক্ষে বোল্টের চেয়ে বেশি উইকেট আছে শুধু স্যার রিচার্ড হ্যাডলি (৪৩১) ও ড্যানিয়েল ভেট্টোরির (৩৬১)। টেস্টে আড়াইশ’ উইকেটের অভিজাত ক্লাবে নাম লেখাতে সাউদির প্রয়োজন আর মাত্র তিন উইকেট। বোল্টের মতো এক ওভারে জোড়া শিকার ধরে সাউদিও কাল বড় এক মাইলফলক ছুঁয়েছেন।

ইনিংসের ৫৮তম ওভারে করুনারত্নে ও নিরোশান ডিকভেলাকে ফিরিয়ে নিউজিল্যান্ডের তৃতীয় বোলার হিসেবে সব সংস্করণ মিলিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৫০০ উইকেট পূর্ণ করেন সাউদি। যথারীতি এ তালিকায়ও তার সামনে আছে ভেট্টোরি (৬৯৬) ও হ্যাডলি (৫৮৯)। উইকেট সংখ্যা আরও বাড়তে পারত। কিন্তু বৃষ্টির কারণে লাঞ্চের পর আর খেলা সম্ভব হয়নি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: শ্রীলংকা প্রথম ইনিংস ১৪৪/৬, ৬৬ ওভারে (দিমুথ করুনারত্নে ৬৫, কুশাল মেন্ডিস ৩২, ডি সিলভা ৩২*। ট্রেন্ট বোল্ট ২/৩৩, টিম সাউদি ২/৪০)।

প্রজন্মনিউজ২৪/মামুন

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ