সুনামগঞ্জ রাস্তা সংস্কার কাজে ধীরগতি, দুর্ভোগে জনসাধারণ

প্রকাশিত: ২৪ অগাস্ট, ২০১৯ ০৬:৩৭:২২ || পরিবর্তিত: ২৪ অগাস্ট, ২০১৯ ০৬:৩৭:২২

ইমদাদুল হাসান সাকিব, জেলা প্রতিনিধি: বিভাগীয় শহর সিলেট মহানগর থেকে সুনামগঞ্জ ৬৮/৭০কি.মি. দূরত্বের পথ। বাস, কার, লেগুনা, সিএনজি করেই যাতায়াত করতে হয় সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ, দিরাই, শাল্লা, তাহিরপুর, বিশম্বরপুরসহ আরো গুরুত্বপূর্ণ থানা শহরের মানুষজনকে।

আবার একি রাস্তা দিয়ে ছাতক সিমেন্ট, লাফার্জ বা সুনামগঞ্জে অবস্থিত বিভিন্ন কলকারখানার মালামাল বহনকারী বিশালাকৃতির মালবাহী গাড়ি চলাচল করে থাকে। সিলেট মহানগর থেকে বেরিয়ে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত পুরো রাস্তার দুইপাশ খোঁড়ে প্রশস্ত করন কাজ চলছে।খুব ধীরগতিতে চলা এই উন্নমন কাজটি যাত্রী ও গাড়ি চালকদের জন্য চরম বিরক্তি ও ঝুঁকির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বড় করতে দুপাশ খুঁড়ে আরো যেন সংকীর্ণ করে দেয়া হয়েছে ব্যস্ততম এই রাস্তাটিকে।বড় বাস ট্রাক বা মালবাহী অন্যসব বড় গাড়ি যখন চলাচল করে তখন অনেক ঝুঁকি নিয়ে পাশ দিয়ে যেতে হয় ছোট গাড়িগুলোর।সংকীর্ণ হয়ে যাওয়া আর রাস্তায় থাকা গর্তের কারণে ছোট গাড়ি বড় গাড়ি দেরকে সাইড দেয়া যাত্রী ও গাড়ির জন্য খুবই ভয়ংকর।

যেকোনো সময় যেকোনো দুর্ঘটনা ঘটতে পারে আর এমনিতে আমাদের দেশে সড়কপথে দুর্ঘটনাজনিত অনেক প্রাণ অকালে ঝরে পড়ছে। গত দেড় থেকে দুই বছর আগে সিলেট সুনামগঞ্জ সংযোগ স্থল গোবিন্দগঞ্জ পয়েন্ট সংলগ্ন পুরোটা রাস্তা ভেঙে মারাত্মক আকার ধারন করলে রস্তাটি সংস্কার কাজ শুরুহয়।

অনেকদিন পরে ঢালাই করন কাজ শুরু করলেও এখন পর্যন্ত আংশিক কাজ হয়েছে।বাকি থাকা গোবিন্দগঞ্জ থেকে সুনামগঞ্জ ও ছাতকের পথের বেহাল দশা।বড়বড় গর্তে জমে থাকে বৃষ্টিরপানি অফিস স্কুলকলেজ বা বাজারে আসা সকল ধরনের পথচারীরই রাস্তার গর্তে জমাট বাধা পানির জন্য কাপড় নষ্ট হয়।আর যানবাহনে যাতায়াতকারীদের তো দুর্ভোগ আছেই।

বিশেষকরে রোগী ও গর্ভবতী মহিলাদের জন্য রাস্তার এই গর্তগুলো ভয়ংকর। এলাকাবাসী ও যাত্রীদের সাথে এব্যাপারে কথা বললে তারা জানান, রাস্তাঘাট ভাঙা থাকা সবার জন্যই বিরক্তি ও দুর্ভোগের।ভাঙা থাকা রাস্তাটিতে কজ শুরু হয়েছে দেখে আশান্বিত হয়েছিলাম কিন্তু কাজের ধীরগতি ভাঙা থাকা অবস্থা থেকেও বেশি অতিষ্ঠ করে তুলছে।

এই রাস্তা দিয়েই জনসাধারণসহ জেলার সকল জনপ্রতিনিধি প্রশাসনিক ও সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারী যাওয়া আসা করতে হয়।তাই যতো তাড়াতাড়ি সম্ভব কাজগুলো সম্পূর্ণ করলে সকলের যাত্রাপথই স্বস্তিকর হবে।সর্বোপরি কাজ উন্নয়নকাজ যখন শুরু হয়েছে খুব তাড়াতাড়ি তা সম্পন্ন হবে বলে সংশ্লিষ্টদের কাছে তারা আশাবাদী্।

প্রজন্মনিউজ২৪/রেজাউল

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ