ভারতে তিন তালাক বিল ইসলামী শরিয়তের উপর হস্তক্ষেপ : দেওবন্দে

প্রকাশিত: ০৩ অগাস্ট, ২০১৯ ১০:৫৬:৪৪

ভারতের রাজ্যসভায় সদ্য পাস হওয়া তিন তালাক বিলের বিরোধিতা করছে দেশটির বেশির ভাগ মুসলিম সংগঠন। তিন তালাক বিলকে ইসলামী শরিয়তের ওপর হস্তক্ষেপ বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দারুল উলুম দেওবন্দের প্রিন্সিপাল মুফতি আবুল কাসেম নোমানী। পাশাপাশি বিলটিতে সম্মতি দেয়ার আগে বিষয়টি নিয়ে ইসলামী নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলতে রাষ্ট্রপতির কাছে চিঠি পাঠিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

বিরোধীদের সব মতামত উপেক্ষা করে ভারতের রাজ্যসভায় মঙ্গলবার বিতর্কিত তিন তালাক বিল পাস করেছে মোদি সরকার। এর প্রতিক্রিয়ায় গণমাধ্যমে প্রেরিত বিবৃতিতে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করে দারুল উলুম দেওবন্দ। এ বিলের ওপর প্রশ্ন রেখে দেওবন্দের প্রিন্সিপাল বলেন, মোদি সরকার তিন তালাক বিল পাস করে মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের অধিকার হরণ করেছে।

তিনি বলেন, তিন তালাক বিল শরিয়তের ওপর মোদি সরকারের সরাসরি হস্তক্ষেপ। দেশের আইনে সব ধর্মের মানুষের ধর্মীয় স্বাধীনতার কথা আছে। কিন্তু বিজেপি সরকার মুসলমানদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে বারবার আক্রমণ করে যাচ্ছে।

পাসকৃত তিন তালাক বিলের ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করে মুফতি আবুল কাসেম নোমানী বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার মুসলমানদের ধর্মীয় ব্যাপারে এভাবে হস্তক্ষেপ না করে ভারতের আলেমদের সাথে আলোচনার মাধ্যমে এ বিষয়ে মীমাংসা করতে পারত।

রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের কাছে পাঠানো চিঠিতে দেওবন্দ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিতর্কিত বিলটি ক্ষমতাসীন সরকার গায়ের জোরে পাস করেছে। এতে মুসলিম সম্প্রদায়ের মতামতের কোনো তোয়াক্কাই করা হয়নি। তাই বিলটিতে রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষর না করে আবার রাজ্যসভায় ফেরত পাঠানোর আবেদন জানিয়েছে দারুল উলুম দেওবন্দ। অবশ্য এরই মধ্যে ভারতের রাষ্ট্রপতি তাতে সম্মতি স্বাক্ষর দিয়েছেন।

প্রজন্মনিউজ২৪.কম

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন