সততায়  নেই, অভিজ্ঞতায় ঘাটতি আছে : মেয়র আতিক

প্রকাশিত: ০১ অগাস্ট, ২০১৯ ০৫:৩৭:৫৮

 ব্যক্তিগত জীবনে আমি সৎ। আমার মাঝে সততার কোনো ঘাটতি নেই। তবে অভিজ্ঞতায় কিছুটা ঘাটতি আছে, বলেছেন মেয়র আতিক। এডিস মশা নিধন ও ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় নিজের আন্তরিকতার বিবরণ দিতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত আন্তমন্ত্রণালয় বৈঠকে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন আতিকুল ইসলাম।

মেয়র আতিক বলেন, ডেঙ্গু কোনো সিজনাল রোগ নয়। এটি বছরের যে কোনো সময়েই হতে পারে। কাজেই বছরের ৩৬৫ দিনই আমাদের এ রোগ নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে। ডেঙ্গু মশা নিয়ে একটি রিসার্চ সেন্টার করা যেতে পারে।

মেয়র বলেন, এখন যে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান মশার ওষুধ আমদানি করতে পারে। এতে কোনো বিধিনিষেধ নেই। আগে এটা ছিলো না। কেউ চাইলেই মশার ওষুধ আমদানি করতে পারতেন না। তিনি বলেন, এর আগে একটি প্রতিষ্ঠান বিপুল পরিমাণ মশার ওষুধ আমদানি করেছে। তাদের ওষুধে মশা মরছে না। এ কারণে আমরা তাদের ওষুধ নিষিদ্ধ করেছি এবং ওই প্রতিষ্ঠানটিকে ব্ল্যাকলিস্টেড করা হয়েছে। পরবর্তী ওষুধ শিগগিরই আসছে।

আতিকুল ইসলাম বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে আমরা ইতিমধ্যেই ১৪ হাজার মশারি বিতরণ করেছি। আরো ১৬ হাজার মশারি প্রস্তুত রেখেছি। আমরা চেষ্টা করছি যাতে একজন নাগরিকও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ না করে।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আন্তমন্ত্রণালয় বৈঠকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. সাঈদ খোকন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক প্রধান সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, বিএমএ নেতা ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ নেতা ইকবাল আর্সলানসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সংস্থা এবং সরকারি হাসপাতালগুলোর পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রজন্মনিউজ২৪/নাবিল

 

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ