পার্থ বণিকের প্রতিদিন অবৈধ আয় ছিল ১০ লাখ টাকা

প্রকাশিত: ০১ অগাস্ট, ২০১৯ ১২:৩৫:১৬

রাজধানীর অভিজাত এলাকা ধানমন্ডির হাতিরপুলে নিজ ফ্ল্যাট থেকে ৮০ লাখ টাকাসহ গ্রেফতার হওয়া সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি প্রিজন) পার্থ গোপাল বণিক দুর্নীতিতে হাত পাকিয়েছেন অনেক আগেই।

\চাকরি জীবনের শুরু থেকে তিনি ঘুষ, দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। তার অবৈধ আয়ের প্রধান উৎসের মধ্যে ছিল কারাগারে কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ বাণিজ্য, বন্দীদের অবৈধ সুযোগ-সুবিধা দিয়ে অর্থ আদায়, কারাগারের উন্নয়নকাজের অর্থ আত্মসাৎ ও মাদক সিন্ডিকেট।

সিলেটে বদলি হওয়ার আগে চট্টগ্রাম কারাগারের ডিআইজি ছিলেন পার্থ গোপাল বণিক। সাবেক জেলার সোহেল রানা ও ডিআইজি-প্রিজন্স পার্থ গোপাল বণিকের নেতৃত্বে দুর্নীতির স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয় চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার। বিশেষ সাক্ষাৎ, হাসপাতাল ও ওয়ার্ডে বন্দীদের বিশেষ সুবিধা দেয়া, মাদক, ক্যান্টিন বাণিজ্যসহ নানাখাতে প্রতিদিন তাদের অবৈধ আয় ছিল লাখ লাখ টাকা। তদন্ত করে দুদক এর প্রমাণ পেয়েছে।

চট্টগ্রাম কারাগারে এসব অনিয়ম-দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণ করতো দুটি পক্ষ। একটির নেতৃত্ব দিতেন জেলার সোহেল রানা এবং অন্যটির নেতৃত্বে ছিলেন পার্থ বণিক ও জেল সুপার প্রশান্ত বণিক। যাদের প্রতিদিন আয় ছিল প্রায় ৪০ লাখ টাকা। যেখান থেকে প্রতিদিন অন্তত ১০ লাখ যেতে পার্থ বণিকের পকেটে।

প্রজন্মনিউজ২৪/শেখ ফরিদ

এ সম্পর্কিত খবর

"ভাঙ্গা রাস্তা, ভোগান্তিতে সাধারণ জনগণ"

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ স্থানান্তরের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ

সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর গণ সাক্ষাত

দুদুর বিচারের দাবিতে ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

ঝিনাইদহ শৈলকুপা ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ভিজিএফ’র চাউল জব্দ ও সিলগালা

বশোমুরবিপ্রবি সাংবাদিক জিনিয়াকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার ও হয়রানির ঘটনায় ঢাকসাস'র মনববন্ধন

দিনাজপুরে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে জালিয়াতিতে এক দালাল আটক

জাতিসংঘ ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্ক যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী আরও দু’টি আন্তর্জাতিক পুরস্কার পাচ্ছেন

৬৩ কোটি ব্যারেল তেল মজুদ রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ